চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুর ডিগ্রি কলেজ সংলগ্ন নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে নেমে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে নির্মাণ শ্রমিক লিটন পাঠান (৪৫) ও রাসেল প্রধান (২৮) ট্যাকিংর সেন্টারিং খুলতে গিয়ে অক্সিজেনের অভাবে মারা গেছে বলে জানিয়েছেন উদ্ধার কাজে নিয়োজিত পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তাগণ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মতলব দক্ষিণ বাড়িগাঁও গ্রামের বাসিন্দা আবুল বাশার তার নিজের জায়গায় একটি ভবন নির্মাণ করার শুরুতেই সেপটিক ট্যাংকের কাজ শুরু করেন। সেখানে রাসেলকে রাজমিস্ত্রি হিসেবে এবং লিটনকে শ্রমিক হিসেবে কাজের দায়িত্ব দেন। গত এক মাস আগে সেপটিক ট্যাংকটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

শুক্রবার সকাল ৮টায় রাসেল ও লিটন ওই সেপটিক ট্যাংকের সেন্টারিং খুলে ভেতরে প্রবেশ করেন। এ সময় সেখানকার বিষাক্ত গ্যাসের ক্রিয়ায় তারা জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন এবং অল্প সময়েই দম বন্ধ হয়ে মারা যান। আশপাশের লোক ও নির্মাণাধীন ওই বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে এসে সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে ওই দুই শ্রমিক অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস বিভাগে খবর দেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস বিভাগের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যান এবং দুপুর ১২টায় ঘটনাস্থল থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

সহকারী পুলিশ সুপার ইয়াছির আরাফাত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশিদ, ফায়ার স্টেশন ইনচার্জ আশাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। 

ওসি মো. মহিউদ্দিন মিয়া জানান, ওই দুই নির্মাণ শ্রমিক অনেকদিরন ধরে ভবনের কাজ করে আসছিলেন। সকালে সেপটিক ট্যাংক থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। অক্সিজেনের অভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।