নোয়াখালীর হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের পাশে বঙ্গোপসাগরের ধমারচর এলাকায় ঝড়ের কবলে পড়ে ‘এমবি সিরাজ’ নামে একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে গেছে। এতে ট্রলারে থাকা ১৬ জেলের মধ্যে দু’জনের মৃতদেহ এবং ১৩ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনও বেলাল নামে এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। 

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে মাছ ধরার সময় ট্রলারটি ডুবে যায়। এতে জাহাজমারা ইউনিয়নের আমতলি গ্রামের মাইন উদ্দিন (৪৫) ও একই ইউনিয়নের নতুন সুখচর গ্রামের মো. রাফুল (২৫) মারা যান।

জেলেদের উদ্ধারকারী লুৎফুল্লাহিল মজিব নিশান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কয়েক দিন আগে ১৬ জন জেলে নিয়ে মাছ ধরতে গভীর সমুদ্রে যায় এমবি সিরাজ নামের ট্রলারটি। বৃহস্পতিবার গভীর রাত পর্যন্ত মাছ ধরা শেষ করে শুক্রবার ভোরে ঘাটের উদ্দেশে যাত্রা করে তারা। সকাল ১০টার দিকে তাদের ট্রলারটি নিঝুমদ্বীপ এলাকার বঙ্গোপসাগরের ধমারচরে পৌঁছলে হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায় । এতে ট্রলারে থাকা ১৬ জেলে সাগরে পড়ে যায়। পরে পাশে থাকা 'এমবি ইয়ামিন চৌধুরীর' ট্রলারে ১৩ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। জোয়ারের আঘাতে ডুবে যাওয়া ট্রলারটি পাশের একটি চরে গিয়ে আটকা পড়লে ট্রলারের ভেতর থেকে মাইন উদ্দিন ও রাফুলের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিখোঁজ একজনের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নিখোঁজ জেলেকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।