দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটায় ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার ভোর ৫ টায় বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গেপ্তার করা হয়। দুপুরে গ্রেপ্তারদের আদালতে পাঠায় পুলিশ।

এর আগে গত বুধবার রাত ৯ টায় উপজেলার ১নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়নের জোলাপাড়া মসজিদ সংলগ্ন একটি ধুনচার ক্ষেতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তাররা হলেন- উপজেলার ৪নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়নের জোলাপাড়া গ্রামের বিশু চন্দ্র দাসের ছেলে স্বপন চন্দ্র দাস (২৫) এবং একই ইউনিয়নের পূর্ব-পাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোরসালিন মিয়া (২২)।   
 
মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার রাত ৮ টায় ঘরে বিদ্যুৎ না থাকায় ওই কিশোরী এবং তার এক বন্ধু মিলে বাড়ি থেকে বের হয়ে স্থানীয় করতোয়া নদীর তীরে যায়। এরপর গ্রেপ্তার স্বপন এবং মোরসালিন তাদের বিরুদ্ধে অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ এনে কিশোরীর বন্ধুকে তাড়িয়ে দেয়। পরে ওই কিশোরীকে পার্শ্ববর্তী ধুনচার ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করেন। পরে ওই কিশোরী চিৎকার করলে আশেপাশে লোকজন এগিয়ে আসে এবং আসামিরা পালিয়ে যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঘোড়াঘাট থানার ওসি আবু হাসান কবির বলেন, মামলা দায়েরের পর আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ঘটনার শিকার ওই কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।