গোপালগঞ্জে জমি-জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে কৃষক হত্যা মামলায় আব্দুল হান্নান শেখ (৭২) নামের একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।  সেই সাথে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. আব্বাস উদ্দীন এ আদেশ দেন। এ মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামির স্ত্রী মহুরোন নেছাকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বালাডাঙ্গা গ্রামের কৃষক  নুরুল ইসলাম খানের সাথে কৃষক আব্দুল হান্নান শেখের জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।  ২০১১ সালের ১৯ ডিসেম্বর রাতে জমি দেখে বাড়ি ফিরছিলেন কৃষক নুরুল ইসলাম খান। পথিমধ্যে বন্যাবাড়ি গ্রামে পৌঁছালে আব্দুল হান্নান শেখ ও তার লোকজন নুরুল ইসলাম খানের ওপর হামলা চালায় ও তাকে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে কৃষক নুরুল ইসলাম খানকে  উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন ২০ ডিসেম্বর তিনি মারা যান। এ ঘটনায়  টুঙ্গিপাড়া থানা মামলা নেয়নি।  ২০১২ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি নিহতের স্ত্রী আফরোজা নাহার রানু বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে গোপালগঞ্জের আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক বিষয়টি তদন্ত করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়।

দীর্ঘ তদন্ত শেষে ডিবি পুলিশের এস.আই মোয়াজ্জেম হোসেন দুই জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দখিল করেন। দীর্ঘ শুনানি ও স্বাক্ষ্যপ্রমাণ গ্রহণ শেষে আদালত আব্দুল হান্নান শেখকে দোষী সাব্যস্ত করে এ রায় দেন।