কিশোরগঞ্জ সুহৃদ সমাবেশ ও বাংলাদেশ জাতীয় যক্ষ্ণা নিরোধ সমিতির (নাটাব) যৌথ উদ্যোগে বুধবার কালীবাড়ি মার্কেটের কিশোরগঞ্জ সমকাল অফিসে তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচার নিষিদ্ধকরণ এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নবিষয়ক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সাইফুল হক মোল্লা দুলুর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন নাটাবের প্রজেক্ট ম্যানেজার ফিরোজ আহমেদ, প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন গবেষক ও ছড়াকার জাহাঙ্গীর আলম জাহান, চেম্বারের সাবেক সভাপতি বাদল রহমান, কাইসের জেলা চেয়ারম্যান শাহ্‌ সারোয়ার জাহান, সাংবাদিক মো. আশরাফুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট শেখ মাসুদ ইকবাল, শিক্ষক সামিউল হক মোল্লা, সুহৃদ জহিরুল ইসলাম, বেগম শরীফা প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, জনসচেতনতাই মানুষকে তামাকজাত দ্রব্য গ্রহণ থেকে বিরত রাখতে পারে। তিনি স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা ও মসজিদে তামাকবিরোধী প্রচার বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। সরকারি বিধি অনুযায়ী কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একশ গজের মধ্যে কোনো সিগারেটের দোকান থাকতে পারবে না। এই বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য কিশোরগঞ্জ সুহৃদ প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে বলে সমকাল সুহৃদ সদস্যরা তাঁদের বক্তব্যে জানান। এছাড়া উপস্থিত সুহৃদরা বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী ধূমপান করবেন না বলে সভায় প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।
নাটাবের ময়মনসিংহ অঞ্চলের কো-অর্ডিনেটর আমিরুল ইসলাম বলেন, শুধু প্রচারের মাধ্যমে তামাকজাত দ্রব্যের অপব্যবহার রোধ করা যাবে না। এজন্য তিনি আইন প্রয়োগের গুরুত্ব রয়েছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।
সুহৃদ ও উপদেষ্টারা জানান, আইনের প্রয়োগ কঠোর হস্তে বাস্তবায়ন করতে হবে। কারণ মানুষ এখন সচেতন। ইচ্ছে করলেই এখন আর ট্রেনে বাসে চালক, হেলপার ও যাত্রী সাধারণ প্রকাশ্যে সিগারেট খেতে পারেন না। সিগারেট ক্ষতিকর নিকোটিন নেশায় পরিণত করে ধূমপায়ীদের- এ কথাটা তরুণ সমাজকে বোঝাতে হবে। আজকের এই মতবিনিময় সভায় যাঁরা উপস্থিত তাঁরা প্রত্যেকেই যদি দু'জন ধূমপায়ীকে ধূমপানের কুফল সম্পর্কে সচেতন করে অভ্যাসটি ত্যাগ করাতে পারেন তবে আজকের এই সভা সার্থক হবে বলে উপস্থিত সবাই একমত প্রকাশ করেন।
সাধারণ সম্পাদক ও যুগ্ম সম্পাদক, সুহৃদ সমাবেশ, কিশোরগঞ্জ