সেনাবাহিনীর বৃক্ষরোপণ অভিযান - ২০২২ উদ্বোধন করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার ঢাকা সেনানিবাসের নির্ঝর আবাসিক এলাকায় একটি বকুল গাছের চারা রোপণের মাধ্যমে দেশের সব সেনানিবাস, ডিওএইচএস ও জলসিঁড়ি আবাসন প্রকল্পে ভিডিও টেলি কনফারেন্সের (ভিটিসি) মাধ্যমে একইসঙ্গে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সেনাপ্রধান।

এ সময় সেনাসদর ও সেনাবাহিনীর ঢাকা অঞ্চলের ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তাসহ সব পদবীর সেনাসদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। একইসঙ্গে সব সেনা অঞ্চলে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের এরিয়া কমান্ডাররা নিজেদের জনবলসহ উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমের সূচনা করেন। এ বছর বৃক্ষরোপণ অভিযানের প্রতিপাদ্য 'বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি-প্রতিবেশ আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ'।

এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মানুষের মৌলিক চাহিদাসমূহ তথা প্রাকৃতিক ও পরিবেশের ভারসাম্যরক্ষায় বৃক্ষের ভূমিকা, জীববৈচিত্র সমৃদ্ধ টেকসই পরিবেশ ও প্রতিবেশ সংরক্ষণ, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে বৃক্ষরোপণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

সেনাবাহিনীর বৃক্ষরোপণ অভিযানে ফলজ, বনজ ও ঔষধিসহ সৌন্দর্যবর্ধক বিভিন্ন গাছের চারা রোপণ করা হবে, যা ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

এ বছর সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে প্রায় আড়াই লাখ গাছের চারা রোপণ করা হবে। দেশের বনজ সম্পদ বৃদ্ধি ও পরিবেশগত ভারসাম্য রক্ষার লক্ষ্যে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর অনুরণনে বাংলাদেশের প্রগতির ধারা চলমান রাখতে সবাইকে স্বপ্রণোদিত হয়ে বৃক্ষরোপণে উৎসাহিত করাই এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য। আইএসপিআর।