মৌলভীবাজারের বড়লেখায় মসজিদের নামকরণ নিয়ে বিরোধের জেরে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে নারীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। শনিবার আসরের নামাজের পর উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে ১২ জনের অবস্থা গুরুতর। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় রোববার বড়লেখা থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সুজানগর গ্রামের একটি মসজিদের নামকরণ নিয়ে এলাকার সাজ্জাদ হোসেন ও আনছারুল হক পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। একপক্ষ চাচ্ছে গ্রামের জামে মসজিদের নাম হবে 'সুজানগর জামে মসজিদ' আর অপরপক্ষ চাচ্ছে নাম হবে 'বপবাড়ি জামে মসজিদ'। নামকরণের বিষয়টি নিয়ে গত বছরের আগস্ট মাসে একটি বৈঠক হয়। 

বৈঠকে স্থানীয়রা মসজিদের রেকর্ড (দলিল ও পর্চা) দেখে 'সুজানগর জামে মসজিদ' নাম রাখার সিদ্ধান্ত দেন এবং উভয় পক্ষকে বিষয়টি নিয়ে আর কোনো প্রকার বিরোধে জড়াতে নিষেধ করেন। এর পরও শনিবার আসরের নামাজের পর দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। খবর পেয়ে বড়লেখা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করে। 

সাজ্জাদ হোসেন পক্ষের মক্তদির আলী বাদী হয়ে অপর পক্ষের ফয়ছল বপকে প্রধান আসামি করে ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন। অন্যদিকে, আনছারুল হক পক্ষের আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে সাজ্জাদ হোসেনকে প্রধান আসামি করে ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে আরেকটি মামলা করেন।

বড়লেখা থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হননি।