নোয়াখালীতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

প্রকাশ: ৩০ জুন ২০২০   

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর কবিরহাটে ঘরে ঢুকে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে হাত- মুখ বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক বখাটের বিরুদ্ধে। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার সুন্দলপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে বাদী হয়ে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুলছাত্রীর মা কবিরহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় ও কবিরহাট থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে ধর্ষণের শিকার মেয়েটির মা পার্শ্ববর্তী সেনবাগ উপজেলায় তার বাবার বাড়িতে যান। এ সময় তার স্কুলপড়ুয়া মেয়েকে বাড়িতে রেখে যান। মেয়েটি রান্নাঘরে কাজ করার কোন এক ফাঁকে একই ইউনিয়নের সামছুজ্জামানের ছেলে আব্দুর রহিম রবিন কৌশলে ওই শিক্ষার্থীর শয়ন কক্ষে খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে। সন্ধ্যায় মেয়েটি ঘরে ঢুকলে রবিন তার হাত -মুখ বেধে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ভুক্তভোগী মেয়েটির মা বাড়িতে এসে থানায় মামলা দায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটির মা জানান, বিদ্যালয়ের আসা যাওয়ার পথে বখাটে রবিন তার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিত ও উত্যক্ত করতো। কিন্তু তার মেয়ে সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় রবিন তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এরই জের ধরে রবিন তার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

কবিরহাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ফজলুল কাদের  ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার একমাত্র আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক পলাতক রয়েছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার সকালে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে।