হাত-মুখ বেঁধে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

প্রকাশ: ২২ জুন ২০২০   

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নাটোরের বড়াইগ্রামে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ সোমবার সকালে বনপাড়া পৌরসভার বেরপাড়া এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে সিদ্দিকুর রহমানকে (৩২) গ্রেফতার করেছে। তবে আরেক আসামি একই এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে রফিকুল ইসলাম (৩৫) পলাতক রয়েছেন।  এর আগে রোববার রাতে নির্যাতিতা স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে বড়াইগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায় , গত শুক্রবার বিকেলে বাড়ির অদূরে বিলে শাক তুলতে যায় ওই স্কুলছাত্রী। এসময় অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম ও তার সহযোগী সিদ্দিকুর রহমান দেশিয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পাশের ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে যান তাকে। সেখানে নিয়ে ছাত্রীর হাত-মুখ বেধে রফিকুল তাকে ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে কৌশলে ওই ছাত্রী মুখের বাঁধন খুলে চিৎকার দিলে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যান। পরে ছাত্রী বাড়ি ফিরে তার মাকে বিস্তারিত জানায়। কিন্তু এরমধ্যে স্থানীয় মাতব্বরেরা বিষয়টি মিমাংশা করে দেবেন বলে সময় ক্ষেপণ করতে থাকেন। অবশেষে রোববার রাতে রফিকুল ও সিদ্দিকুরের নামে থানায় মামলা দায়ের করেন ছাত্রীর মা।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলিপ কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সিদ্দিকুরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রফিকুলকে গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলছে। একই সঙ্গে নির্যাতিত ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।