ভোলায় মিছিল-সমাবেশ নিষিদ্ধ

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

 ভোলা প্রতিনিধি

বুধবার সকালে ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে আন্দোলনকারীরা জড় হন -সমকাল

ফেসবুকে একটি বিভ্রান্তিকর পোস্টের সূত্র ধরে রোববার ভোলার বোরহানউদ্দিনে সংঘর্ষে চারজন নিহতের ঘটনায় পরবর্তী আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্র্রণে রাখতে জেলায় মিছিল, সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। তিনি জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে মিছিল সমাবেশ করতে দেওয়া হবে। পুরো জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

বুধবার ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে বোরহানউদ্দিনে সংখ্যালঘু সম্প্র্রদায়ের এক যুবকের বিচারের দাবিতে 'তৌহিদী জনতা'র ব্যানারে বিক্ষোভ থেকে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর ব্যাপক সংঘর্ষ বাধে। একপর্যায়ে পুলিশের গুলিতে এক কিশোরসহ চারজন নিহত হন। দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে ১০ পুলিশ সদস্যসহ শতাধিক মানুষ আহত হন। সকাল ১১টার দিকে উপজেলা সদরের বোরহানউদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে উত্তেজিত জনতা বোরহানউদ্দিন বাজারে ভাওয়ালবাড়ির একটি মন্দির ও সাতটি ঘর ভাঙচুর করে।

বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক যুবকের ফেসবুক থেকে হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির একটি স্ট্ক্রিনশট ভাইরাল হলে দু'দিন ধরে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। পুলিশ বলছে, বিপ্লব নামের ওই যুবকের হ্যাক হওয়া আইডি থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার বক্তব্য ছড়ানোর ঘটনা থেকে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।