বরের বাবার সঙ্গে মসজিদের ইমামও গেলেন জেলে

প্রকাশ: ২২ আগস্ট ২০১৯      

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি

দণ্ডপ্রাপ্ত ইমাম (বামে) ও বরের বাবা -সমকাল

রাত প্রায় সাড়ে ১১টা। বিয়েবাড়িতে চলছে আনন্দ উৎসব। খাওয়া-দাওয়াও শেষ। কনেকে বধূবেশে শ্বশুরবাড়িতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এমন সময় পুলিশ ফোর্স নিয়ে সেখানে হাজির হলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেন। তিনি দেখেন ১৩ বছরের এক মেয়েকে বাল্যবিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এ অপরাধে তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কাজিকে দুই বছর ও বরের বাবাকে এক বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন। 

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌর এলাকার কাশীপুর গ্রামে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক জাকির হোসেন জানান, গভীর রাতে অতিগোপনীতায় কালীগঞ্জ পৌরসভার কাশীপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে তারেকুজ্জামানের সঙ্গে একই গ্রামের জিয়াউল ইসলামের মেয়ের বিয়ে দেওয়া হচ্ছে- এমন খবর পেয়ে ওই রাতেই তিনি পুলিশ নিয়ে হাজির হন বিয়েবাড়িতে। তিনি বর ও কনের বিয়ের বয়স না হওয়ায় বিয়েটি বন্ধ করে দেন। এ অপরাধে রাতেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে স্থানীয় মসজিদের ইমাম মিলন হোসেনকে দুই বছর ও বরের বাবা ইসমাইল হোসেনকে এক বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন।