দাম কম এবং শ্রমিক না পাওয়ায় ফের টাঙ্গাইলে ধানক্ষেতে আগুন ধরিয়ে প্রতিবাদ করেছেন এক কৃষক। সোমবার বিকেলে বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের কাশিল গ্রামে এ প্রতিবাদ জানান কৃষক নজরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, বাজারে প্রতি মণ ধানের দাম ৫০০ থেকে ৫৫০ টাকা। অথচ এক মণ ধানের উৎপাদন খরচ প্রায় ৭০০ টাকার ওপরে। এ ছাড়া বর্তমানে একজন ধানকাটা শ্রমিকের মজুরি ৭০০ থেকে থেকে ৭৫০ টাকা। আর একজন শ্রমিক এক দিনে এক থেকে দেড় মণ ধান কাটতে পারে। ক্ষেতে পাকা ধান থাকলেও শ্রমিক সঙ্কটের কারণে কাটতে পারছি না। এ ছাড়া ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হওয়ায় ধানে চাল নেই। যা আছে, তাও সময়মতো ঘরে তুলতে পারছি না।

কাশিল গ্রামের কৃষক ওসমান আলী বলেন, প্রায় ৫৬ শতাংশ জমিতে ধান আবাদ করেছি। ২০ থেকে ২৫ মন ধান উৎপাদন হবে। যার বিক্রয়মূল্য হবে ২০ হাজার টাকা। আর আমার উৎপাদন খরচ হবে ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকা। লোকসানের মুখে পড়তে হবে। এ বছরের মত পরিস্থিতি আর হয়নি। তাপদাহের কারণে শ্রমিক সংকট, উৎপাদন খরচ বেশি- নানা কারণে এ সমস্যার তৈরি হয়েছে।

কাশিল ইউপি চেয়ারম্যান মির্জা রাজিক বলেন, ধানের নায্য মূল্য না পেয়ে কৃষক দিশেহারা।

বাসাইল উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রুপালি খাতুন বলেন, এ সময়ে ধানের বাজার দর কিছুটা কম থাকলেও কৃষক যদি ধান সংরক্ষণ করেন, তবে ক'দিন পরই বেশি দাম পাবেন। তাপদাহসহ বিভিন্ন কারণে বর্তমানে কিছুটা শ্রমিক সংকট রয়েছে বলে তিনি জানান।

এর আগে রোববার জেলার কালিহাতী উপজেলায় আব্দুল মালেক সিকদার নামে এক কৃষক নিজের পাকা ধানক্ষেতে আগুন দিয়ে প্রতিবাদ জানান।

মন্তব্য করুন