৩৫ দিন নিখোঁজ

সাদা পোশাকে তুলে নিয়ে যাওয়া ছেলেকে ফেরত চান বাবা-মা

প্রকাশ: ০৯ অক্টোবর ২০১৭      

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

নিখোঁজ কলেজছাত্র আবদুল জব্বার -ফাইল ছবি

পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকধারীরা সকালে বাড়ি থেকে আমার ছেলেটাকে তুলে নিয়ে গেছে। এর পর ৩৫ দিন পার হলো, আজও তার খোঁজ পাইনি। থানায় গেলে পুলিশ জিডি নেয়নি। বলেছে, নাম-ঠিকানা রেখে যাও। খোঁজ পাওয়া গেলে জানাব। আমি আমার কলেজপড়ূয়া ছেলে আবদুুল জব্বারের সন্ধান চাই।

সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বলেন সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামের  মো. সাজ্জাদ হোসেন। তিনি জানান, তার ছেলে আবদুল জব্বার সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে সম্মান শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। সে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নয়। তাহলে সাদা পোশাকধারী পুলিশ কেন তাকে তুলে নিয়ে যাবে? আর ৩৫ দিন পরও কেন তার খোঁজ পাওয়া যাবে না! কথাগুলো বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন একটি কিন্ডারগার্টেনের ভ্যানচালক জব্বারের বৃদ্ধ বাবা সাজ্জাদ হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জব্বারের মা সায়রা খাতুন ও ছোট ভাই আবদুল হাকিম নয়ন।

লিখিত বক্তব্যে সাজ্জাদ হোসেন আরও জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টার দিকে আবদুল জব্বার বাড়ির উঠানে হাঁটাহাঁটি করছিল। ওই সময় সাদা পোশাকে পুলিশ পরিচয়ে কয়েক ব্যক্তি তাকে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে তুলে নিয়ে যায়। জানতে চাইলে তারা জানায়, অভিযোগ আছে।

তিনি বলেন, তালা থানায় গেলে পুলিশ জব্বারকে গ্রেফতারের বিষয়টি অস্বীকার করে। যে পুলিশ কর্মকর্তা আমার ছেলেকে তুলে এনেছিলেন, আমরা তাকে চিনতে পেরেছি। যে মোটরসাইকেলে জব্বারকে তুলে আনা হয়েছিল, সেটিও থানায় দেখতে পাই। পুলিশের কাছে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি, ওই ব্যক্তি তালা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাসুদ হাসান। অথচ তিনি আমার ছেলেকে তুলে আনার বিষয়টি বেমালুম অস্বীকার করলেন। ফলে বাধ্য হয়ে গত ২৩ সেপ্টেম্বর তালা থানায় একটি জিডি করতে যাই। পুলিশ আমাদের জিডি না নিয়ে বলে, নাম-ঠিকানা রেখে যান। খুঁজে পাওয়া গেলে জানাব।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে জব্বারের মা সায়রা খাতুন বলেন, ছেলের চিন্তায় আমাদের ঘুম, খাওয়া-দাওয়া বন্ধ। আমরা আমাদের ছেলের সন্ধান চাই। ও কোনো অপরাধ করলে তাকে আইনের কাছে সোপর্দ করুন, বিচার করুন। ধরে নিয়ে গুম করা হবে কেন? আর কেনই বা পুলিশ বিষয়টি অস্বীকার করবে! 

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, যারা জব্বারকে উঠিয়ে নিয়ে যায় তাদের কোমরে  ছিল ওয়্যারলেস, পিস্তল ও হ্যান্ডকাফ। এর পরও তারা যে পুলিশের লোক না- তা তো মানা যায় না। জব্বার এলাকায় ভালো ছেলে হিসেবে পরিচিত। সে কাশিয়াডাঙ্গা মাদ্রাসা ও আল আমিন মাদ্রাসায় পড়া শেষ করে পাটকেলঘাটা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে বর্তমানে পড়ছিল সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তারা তাদের ছেলেকে সুস্থ অবস্থায় ফেরত চেয়েছেন।

তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান হাফিজুর রহমান বলেন, তালা থানা পুলিশ এ নামের কোনো ছেলেকে গ্রেফতার করেনি। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জব্বার নামের ছেলেটি দীর্ঘ দিন ধরে বাড়িতে থাকে না। এলাকার লোকজনও তাই বলেছে। তার বাবা থানায় জিডি করেননি। তিনি ছেলের সন্ধান নিতে থানায় এসেছিলেন। নাম-ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর  রেখে দিয়েছিলাম। ওই ছেলের খোঁজ এখনও পাওয়া যায়নি। তিনি আরও জানান, পুলিশ পরিদর্শক মাসুদ হাসান তালা থানা থেকে বদলি হয়ে গেছেন।

আরও পড়ুন

বিভিন্ন স্থানে বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার

বিভিন্ন স্থানে বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিএনপি-জামায়াত ও এর অঙ্গ সংগঠনের অন্তত ...

কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা ভোট চাইলেন ধানের শীষে

কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা ভোট চাইলেন ধানের শীষে

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র রক্ষায় শুক্রবার দুপুরে ...

ভরাডুবির শঙ্কায় আওয়ামী লীগ বেসামাল: ড. মোশাররফ

ভরাডুবির শঙ্কায় আওয়ামী লীগ বেসামাল: ড. মোশাররফ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং কুমিল্লা-১ ও ২ আসনে দলের ...

নির্বাচনকে ঘিরে মত প্রকাশের অধিকার হুমকিতে

নির্বাচনকে ঘিরে মত প্রকাশের অধিকার হুমকিতে

নির্বাচনকে ঘিরে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও ভয় দেখিয়ে বাংলাদেশের ...

নারায়ণগঞ্জে চার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আটক ১৭২

নারায়ণগঞ্জে চার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আটক ১৭২

নারায়ণগঞ্জে চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানে নির্বাচনে নাশকতার পরিকল্পনার ...

'বাংলাদেশে গণতন্ত্র ও অগ্রগতিতে হুমকি জামায়াত'

'বাংলাদেশে গণতন্ত্র ও অগ্রগতিতে হুমকি জামায়াত'

বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে মৌলবাদী জামায়াতে ইসলামী একটি হুমকি। ...

ড. কামালের ওপর হামলার বিষয়ে অবহিত নয় ইসি: সচিব

ড. কামালের ওপর হামলার বিষয়ে অবহিত নয় ইসি: সচিব

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের ওপর হামলার বিষয়ে ...

বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে হামলা মেনে নেওয়া যায় না: ড. কামাল

বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে হামলা মেনে নেওয়া যায় না: ড. কামাল

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, 'শহীদ ...