আবুধাবিতে হামলার প্রতিশোধ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ বিন জায়েদ আল-নাহিয়ান এ হামলাকে ‘জঘন্য অপরাধমূলক তৎপরতা’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। খবর আলজাজিরার।

তিনি বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে বেসামরিক এলাকা ও স্থাপনা লক্ষ্য করে চালানো হুতি সন্ত্রাসীদের হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। এ হামলায় জড়িতদের অবশ্যই শাস্তি দেওয়া হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা আনওয়ার গারগাশ এ হামলার নিন্দা জানিয়ে একে ‘জঘন্য’ হিসেবে উল্লেখ করেন।

টুইটারে তিনি লেখেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাত আবুধাবিতে বেসামরিক স্থাপনায় হুতিদের জঘন্য হামলা মোকাবিলা করছে।’

এর আগে সোমবার আবুধাবিতে হুতিদের হামলায় অন্তত তিন জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আবুধাবি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের একটি কনস্ট্রাকশন সাইটেও হামলায় আগুনের ঘটনা ঘটে। নিহতদের দুইজন ভারতীয় ও একজন পাকিস্তানের। এ ঘটনায় তিনটি জ্বালানি ট্যাংক বিস্ফোরিত হয়েছে।

এদিকে হুতিদের সামরিক মুখপাত্র ইয়াহইয়া সারি বলেন, আমরা ‘সংযুক্ত আরব আমিরাতের গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর জায়গায়’ ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোনের সাহায্যে ‘সফলভাবে হামলা চালিয়েছি’।

হুতিদের এ সামরিক মুখপাত্র সংযুক্ত আরব আমিরাতে বেসামরিক নাগরিক ও বিদেশি সংস্থাগুলোকে ‘নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা থেকে দূরে থাকার’ আহ্বান জানান।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোটের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। দেশটি ইয়েমেনের সরকারকে সমর্থন দিয়ে আসছে; যে সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে ইরান সমর্থিত হুতিরা।