উইন্ডোজ ১০ :নতুন কর্টানা

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০১৯      

মোখলেছুর রহমান

উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমে কর্টানা দারুন একটি সংযোজন। মাইক্রোসফটের ডিজিটাল এই সহকারী আবহাওয়া, সংবাদ, ক্রীড়াসহ নানা বিষয়ে আগাম বার্তা দিতে পারে। তবে সম্প্রতি কর্টানায় যুক্ত হয়েছে নতুন ফিচার। এতে আরও কার্যকরি হয়ে উঠেছে কর্টনা।

কর্টানায় থাক অ্যাকাউন্ট ও অ্যাপস

সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিতে কর্টানাকে অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে। উদাহরণস্বরূপ আপনার লিংকডইন অ্যাকাউন্টটি কর্টানার সঙ্গে যুক্ত করতে পারেন। কর্টানা তখন সেই অ্যাকাউন্টে থাকা তথ্যের সন্ধান করতে এবং আপনার অনুরোধ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আপনাকে দিতে পারবে। স্পোর্টিফাই বা স্মার্ট হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস নিয়ন্ত্রণের মতো পরিষেবার মাধ্যমে সঙ্গীত বাজানোসহ কর্টানা আরও বেশ কিছু কাজ করতে পারে। কর্টানা উইন্ডোজ ১০-এ ব্যবহূত অন্যান্য অ্যাপের সঙ্গেও কাজ করতে পারে। যেমন নেটফ্লিক্স বা হুলুতে কোনো অনুষ্ঠান সন্ধান করা কিংবা ফিটবিটকে আপনি নির্দিষ্ট দিনে কতটুকু হেটেছেন, তা জিজ্ঞাসা করা ইত্যাদি।

রিমাইন্ডার সেটআপ

কর্টানার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো, এটি আপনার কাজ এবং আসন্ন ইভেন্টগুলোর বিষয়ে মনে করিয়ে দিতে পারে। এতে রিমাইন্ডার সেট করা খুব সহজ। কর্টানাকে ইংরেজিতে 'আমাকে স্মরণ করিয়ে দাও' কথাটি বলুন। সঙ্গে সঙ্গে আপনার সামনে রিমাইন্ডার সেট করার অপশনগুলো চলে আসবে। প্রদর্শিত পর্দা থেকে, ব্যক্তি, স্থান, সময় বা আপনি যে বিষয়টি স্মরণ রাখতে চান সেটি টাইপ করে ফর্মটি পূরণ করুন। আপনি যদি পছন্দ করেন তবে আপনি ফর্মটি বাইপাস করে 'সন্ধ্যা ৬টায় আমার টেনিস খেলা সম্পর্কে আমাকে স্মরণ করিয়ে দিও'-এর মতো কিছু বলতে পারেন। অথবা আপনি কেবল 'আমাকে স্মরণ করিয়ে দিও' বলতে পারেন এবং তারপর যখন কর্টানা আপনাকে যা মনে করিয়ে দিতে হবে সে সম্পর্কে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে, তখন উত্তর দিলেই হবে। আর তাতে করেই আপনার রিমাইন্ডার সেট হয়ে যাবে।

গুগল ক্যালেন্ডার পরিচালনা

উইন্ডোজ ১০-এ বিল্টইন ক্যালেন্ডার অ্যাপ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, যাতে কর্টানার মাধ্যমেও নির্দেশ প্রদান করা যায়। আপনি গুগল ক্যালেন্ডার ব্যবহারকারী হলে কর্টানার মাধ্যমে সাক্ষাতের সময়সূচি তৈরি এবং সম্পাদনা করতে পারেন। এটি করতে প্রথমে আপনার গুগল ক্যালেন্ডারটি উইন্ডোজ ১০ ক্যালেন্ডারের সঙ্গে একীভূত করতে হবে। প্রথমে উইন্ডোজ ১০-এর অনুসন্ধান বক্সে 'ক্যালেন্ডার' টাইপ করে ক্যালেন্ডার অ্যাপটি চালু করুন। তারপর প্রদর্শিত ক্যালেন্ডার অ্যাপ আইকনটিতে ক্লিক করুন।

এরপর ক্যালেন্ডার স্ট্ক্রিনের নিচে বাঁয়ে সেটিংস আইকনটিতে ক্লিক করুন। যখন সেটিংস ফলকটি উপস্থিত হবে তখন অ্যাকাউন্টগুলো পরিচালনা করুন, অ্যাকাউন্ট যুক্ত করুন- এই অপশনটি নির্বাচন করুন। প্রদর্শিত পর্দা থেকে গুগলকে নির্বাচন করুন। এ পর্যায়ে আপনাকে আপনার গুগল অ্যাকাউন্টের তথ্য দিয়ে সাইন ইন করতে বলা হবে। অ্যাকাউন্ট তৈরি করার ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

লক স্ট্ক্রিন

কর্টানা ব্যবহার করতে আপনাকে উইন্ডোজটিতে লগইন করতে হবে না। উইন্ডোজ লক অবস্থায় স্ট্ক্রিনের ডানদিকে থাকা এই ডিজিটাল সহকারীকে পরিচালনা করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে প্রথমেই সেটিংস> কর্টানা> টক টু কর্টানা- এই অপশনটি নির্বাচন করতে হবে। এরপর লক স্ট্ক্রিন বিভাগে স্ট্ক্রল করে স্লাইডারটি চালু করুন। আমার ডিভাইস লক হয়ে গেলে কর্টানা আমার ক্যালেন্ডার, ই-মেইল, বার্তা এবং পাওয়ার বিআই ডাটা অ্যাক্সেস করুন- এই বার্তার নিচের বক্সটি পরীক্ষা করে দেখুন। তবে আপনি এ ধরনের বার্তা দেখতে না পেলে লক স্ট্ক্রিনে অল্প কিছু কাজ করতে পারবেন। যেমন, এ ক্ষেত্রে লক স্ট্ক্রিনে আপনি গান শুনতে এবং আবহাওয়া বার্তা সন্ধান করতে পারবেন। তবে আপনি রিমাইন্ডার সেট, ই-মেইল প্রেরণ বা আপনার ক্যালেন্ডারে ইভেন্ট যুক্ত করতে পারবেন না।

প্রয়োজনীয় আরও কিছু ব্যবহার

ষ ফ্লাইট নম্বর বা প্যাকেজ ট্র্যাকিং নম্বর দিয়ে কর্টানার মাধ্যমে আপনার প্যাকেজ বা ফ্লাইট ট্র্যাক করতে পারেন।

ষ কর্টানাকে সাধারণ গণনা করার জন্য বলতে পারেন।

ষ কোনো ইভেন্টের জন্য পোস্টারের ছবি স্ন্যাপ করলে কর্টানা সংশ্নিষ্ট তারিখগুলো শনাক্ত করে আপনাকে জিজ্ঞাসা করবে যে আপনি সেখানে উপস্থিত হতে কোনো রিমান্ডার তৈরি করতে চান কি-না।



কর্টানা আর যা যা করতে পারে সেগুলো সম্পর্কে জানতে শুধুমাত্র 'আমাকে সহায়তা করুন' টাইপ করুন বা বলুন এবং আপনি ততক্ষণাৎ কর্টানার অন্য বৈশিষ্ট্যগুলোর একটি দীর্ঘ তালিকা পেয়ে যাবেন। তালিকার যে কোনো একটি ফিচারে ক্লিক করুন। ব্যস কর্টানা তার সেবা নিয়ে আপনার সামনে হাজির হয়ে যাবে।

সূত্র :কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড

অন্যান্য