শৈলী

শৈলী

স্বল্প মসলায় স্পেশাল গরু

প্রকাশ: ২৯ জুলাই ২০২০

করোনাকালে স্বল্প মসলায়, স্বল্প খরচে ঈদের স্পেশাল মাংস। রেসিপি দিয়েছেন রন্ধনশিল্পী আলহামরা নাসরিন হোসেন লুইজা। ছবি তুলেছেন

ফারহান ফয়সাল



কাঁকরোল দিয়ে গরুর মাংস

উপকরণ : কাঁকরোল ৬টি (ছোট ছোট টুকরা করতে হবে), মাংস ৫০০ গ্রাম, তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদ পরিমাণ মতো, মাংসের মসলা ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :প্রথমে চুলায় কড়াইয়ে তেল দিতে হবে। এবার তেলের মধ্যে মাংসসহ সব বাটা মসলা, হলুদ-মরিচের গুঁড়াসহ মাংসের মসলা ঢেলে দিতে হবে। তারপর লবণ দিয়ে নাড়তে হবে। মাংস কসানো হলে কাঁকরোলের কুচি দিয়ে নাড়াচাড়া করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। এভাবে আস্তে আস্তে হালকাভাবে রান্না করতে হবে। পানির খুব বেশি প্রয়োজন নেই। মাংসের ওপর যেন তেল উঠে আসে, খেয়াল রাখতে হবে। রান্নাকৃত মাংস গরম ভাত অথবা পোলায়ের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।



কাঠকচু দিয়ে গরুর মাংস

উপকরণ :কাঠকচু ২ কাপ (কুচি), হাড় ছাড়া মাংস ৫০০ গ্রাম (ছোট টুকরা), তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদ পরিমাণ মতো, মাংসের মসলা ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :প্রথমে চুলায় কড়ায়ে তেল দিতে হবে। এবার তেলের মধ্যে মাংসসহ সব বাটা মসলা, হলুদ-মরিচের গুঁড়াসহ মাংসের মসলা ঢেলে দিতে হবে। তারপর লবণ দিয়ে নাড়তে হবে। মাংস কসানো হলে কচুর কুচি দিয়ে নাড়াচাড়া করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। এভাবে আস্তে আস্তে হালকাভাবে রান্না করতে হবে। পানির খুব বেশি প্রয়োজন নেই। মাংসের ওপর যেন তেল উঠে আসে, খেয়াল রাখতে হবে। রান্নাকৃত মাংস গরম ভাত অথবা পোলাও অথবা পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।



হাড় ছাড়া বিফ কড়াই মাংস

উপকরণ :মাংস ৫০০ গ্রাম, তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ ও হলুদ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :হাড় ছাড়া মাংস চিকন করে কেটে নিন। তারপর চুলায় কড়ায়ে তেল দিতে হবে। এবার তেল গরম হলে মাংস লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে। তারপর তেলের মধ্যে মাংসসহ সব বাটা মসলা, হলুদ-মরিচের গুঁড়াসহ অধরার স্পেশাল মাংসের মসলা ঢেলে দিতে হবে। এবার পেঁয়াজ কুচি তারপর লবণ দিয়ে নাড়তে হবে। এভাবে মাংস কসানো হলে নাড়াচাড়া করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। এভাবে আস্তে আস্তে হালকাভাবে রান্না করতে হবে। গরম ভাত, পোলাও কিংবা পরোটার সঙ্গেও পরিবেশন করতে অনেক মজা।



বিফ মিট বল কারি

উপকরণ :মাংসের কিমা ৫০০ গ্রাম (ছোট টুকরা), তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদ পরিমাণ মতো, মাংসের মসলা ২ টেবিল চামচ ও লবণ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :কিমার মাংসের সঙ্গে সব ধরনের মসলা অল্প পরিমাণ নিয়ে মাখিয়ে দেড় ঘণ্টা

ফ্রিজে রাখতে হবে। এবার চুলায় কড়াই দিয়ে তেল দিতে হবে। তারপর তেলের মধ্যে ফ্রিজে রাখা মাংসগুলো একটু লাল করে ভেজে নিতে হবে। তারপর সব বাটা মসলা, হলুদ-মরিচের গুঁড়াসহ মাংসের মসলা ঢেলে দিতে হবে। এবার পেঁয়াজ কুচি ও লবণ দিয়ে নাড়তে হবে। এভাবে মাংস কসানো হলে নাড়াচাড়া করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে।



গরুর মাংস পটোলের রেজালা

উপকরণ :পটোল ৬ পিচ (খোসা ছড়িয়ে ছোট ছোট টুকরা), হাড় ছাড়া মাংস ৫০০ গ্রাম (ছোট টুকরা), তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদ পরিমাণ মতো, মাংসের মসলা ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো ও মেথিভেজা পানি পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :আগে পটোলের টুকরা তেলে ভেজে রাখতে হবে। তারপর মাংস ধুয়ে সব মসলা দিয়ে মাংস কসাতে হবে। তবে লেগে না যায় তার জন্য পরিমাণ মতো মেথিভেজা পানি দিতে হবে। এবার হওয়া হওয়া অবস্থায় পটোলগুলো দিয়ে নেড়েচেড়ে অল্প জ্বালে রেখে দিলে মাংসের ওপরে তেল ভেসে উঠবে। দারুণ একটা ঘ্রাণ লাগবে নাকে, তখন গরম ভাতে বা পরোটা দিয়ে খেতে সে কী মজা, জিহ্বায় পানি আসবে।



আনারস দিয়ে গরুর মাংস

উপকরণ :আনারসের পেস্ট ২০০ গ্রাম, গরুর মাংস ৫০০ গ্রাম, তেল ১০০ গ্রাম, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ,

রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদ পরিমাণ মতো, মাংসের মসলা ২ টেবিল চামচ ও লবণ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি :প্রথমে চুলায় কড়াইয়ে তেল দিতে হবে। এবার তেলের মধ্যে মাংসসহ সব বাটা মসলা, হলুদ-মরিচের গুঁড়াসহ মাংসের মসলা ঢেলে দিতে হবে। তারপর লবণ দিয়ে নাড়তে হবে। মাংস কসানো হলে আনারসের পেস্ট দিয়ে নাড়াচাড়া করে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। এভাবে আস্তে আস্তে হালকাভাবে রান্না করতে হবে। পানির প্রয়োজন হলে অল্প অল্প করে দিতে হবে। এই মাংস গরম ভাত অথবা পোলাওর সঙ্গে পরিবেশন করতে অনেক মজা।