শৈলী

শৈলী


বইমেলায় রা ন্না র বই

প্রকাশ: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০      

তৌহিদুল ইসলাম তুষার

মজার কোনো খাবার খেতে খুব ইচ্ছে করছে, কিন্তু জানা নেই রেসিপি। এমন সমস্যা সমাধানে রয়েছে রেসিপির বই। চলছে একুশের বইমেলা। এখানেই পেয়ে যাবেন রকমারি সব রান্নার বই। দেশি খাবারের পাশাপাশি রয়েছে বিদেশি রান্নার বেশ কিছু কৌশল। কারণ বিভিন্ন বিদেশি মুখরোচক খাবারের প্রতি মানুষের আকর্ষণ দিন দিন বাড়ছে। বিদেশি খাবার রান্নার কৌশল নিয়েও রয়েছে বেশ কয়েকটি রান্নার বই। এসব বইয়ে বাংলায় হারাতে বসা ঐতিহ্যপূর্ণ রান্নার জ্ঞানকেও লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।

গ্রামবাংলার ট্র্যাডিশনাল রান্না থেকে শুরু করে বিদেশি রান্না সংবলিত সব রেসিপি দিয়ে সাজানো হয়েছে 'কুকিং স্টুডিও' বইটি। যারা সহজ এবং অল্প সময়ে স্বাদ মুখে লেগে থাকার মতো রেসিপি খুঁজছেন তাদের জন্য এটি উপযুক্ত। একদম নতুন রাঁধুনিদের জন্যও এই রেসিপিগুলো খুবই উপকারী। কারণ রান্নার যাবতীয় টিপসসহ পাওয়া যাবে। উম্মি সেলিমের বইটিতে রয়েছে ১৭০টিরও বেশি রেসিপি। আদর্শ প্রকাশনীর এই বইটির দাম ৬০০ টাকা, তবে শৌখিন ম্যাট পেপারে নিতে চাইলে গুনতে হবে ৭০০ টাকা।

খাবারে যারা একটু-আধটু টুইস্ট পছন্দ করেন তাদের জন্য রেসিপির নতুন একটি বই নিয়ে এসেছেন হুমায়রা রায়হানা খান নীলা। 'সেরা রাঁধনির টুইস্ট' বইটি এনেছে অনন্যা প্রকাশনী। দাম ৮০০ টাকা। গরম আসতে শুরু করেছে। চাইতে পারেন জুস বা স্মুদি। বইটি দেখে খুব সহজেই তৈরি করতে পারবেন। অল্প খিদের সহজ সমাধান মজার মজার স্ন্যাক্স আইটেম তৈরির কৌশল রয়েছে। অন্যান্য রেসিপির মধ্যে রয়েছে পরোটা, নান, সবজি, ডিমের ডিমান্ন, মাছের মজা, মুরগি, খাসি এবং গরুর মাংস। এ ছাড়া উৎসবের খাবারের মধ্যে রয়েছে বিরিয়ানি, কেক ও মিষ্টি।

আর একটি মজার বই হচ্ছে 'ফ্রুটস অ্যান্ড ভেজিটেবল কার্ভিং'। খাবার যতই মজাদার হোক না কেন পরিবেশনটা রুচিসম্মত না হলে পরিপূর্ণ তৃপ্তি পাওয়া যায় না। আর খাবার সাজিয়ে পরিবেশনের সর্বাধুনিক পদ্ধতি হচ্ছে কার্ভিং। কার্ভিং হলো ফল ও সবজি দিয়ে ফুল, পশু-পাখি, প্রজাপতি কিংবা কোনো নকশা বিশেষ নৈপুণ্যের সঙ্গে তৈরি করা এবং মূল খাবার সাজানোর জন্য ব্যবহার করা। বই অনুসরণ করে হয়ে উঠতে পারেন দক্ষ 'কার্ভিং' শিল্পী। বইটি এনেছে অবসর প্রকাশনা সংস্থা।

এ ছাড়া মেলা ঘুরে পাবেন মাওলা ব্রাদার্সের অধ্যাপক সিদ্দিকা কবীরের 'রান্না খাদ্য পুষ্টি', অবসর সম্পাদনা বিভাগের 'ইলিশ রান্না', কথাপ্রকাশ থেকে রওশন আরা রুশনীর 'আহার বাহার ১ম খণ্ড', সালাউদ্দিন বইঘর থেকে প্রকাশিত মেহেরুন নেছা তানিয়ার 'রকমারি রেসিপি খাদ্যপুষ্টি রান্না', দোয়েল প্রকাশিত শাহানারা রশীদ ঝরনার 'রুনার রান্না', আদর্শ প্রকাশনীতে পাবেন জাহিদুল ইসলামের 'চুইঝাল নির্বাচিত সেরা ১০০ রেসিপি', অবসর প্রকাশনার সিতারা ফিরদৌসের 'ঢাকাই রান্না' ও 'নানান স্বাদের রান্না', রুনা আরেফিনের 'ছোটদের জন্য রান্না, মা আমি কি খাব?', রুনা আরেফিনের 'বাংলাদেশের আঞ্চলিক রান্না' সময় প্রকাশনের নূরুন নাহার চৌধুরীর 'চাইনিজ ও থাই রান্না', টমি মিয়ার 'চিলড্রেনস রেসিপি', অন্যপ্রকাশে রয়েছে শওকাত ওসমানের 'শাকান্ন', মাজহারুল ইসলামের 'ডেলিসিয়াস ডেজার্ট', অনন্যা প্রকাশনার কেকা ফেরদৌসীর 'স্বাস্থ্য সচেতন রান্না', 'মজাদার রান্না' ও 'ডায়বেটিসের মজাদার রান্না', ঐতিহ্যতে পাবেন হামিদ বানুর 'রকমারি আচার', গাজী প্রকাশনীর ফৌজিয়া ফারিহা মুমুর 'বাঙালির উৎসবের রান্না', অ্যাডর্ন পাবলিকেশনের মেহেরুননেসার 'রকমারি রান্না', মেরিট ফেয়ারে পাবেন ছাবিহা ফেরদৌসী শিমুলের '১০০ পিঠা', '১০০ স্যুপ', '১০০ সরবত, '১০০ ভর্তা' এবং ১০০ চাটনি মোরব্বা সস', দি স্কাই পাবলিশার্স রয়েছে শারমীন লাকীর 'মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ঝটপট রান্না'সহ অনেক বই। এ ছাড়া প্রথমা প্রকাশনে পাবেন নকশা ১০০ মাছ, মাংস, সবজি, মিষ্টান্ন, আচার নামের পৃথক পাঁচটি বই। বর্ণ প্রকাশ থেকে এসেছে জহুরা ফাতেমার পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রান্না। চিত্রা প্রকাশনীতে পাওয়া যাচ্ছে শাম্মী শাহরিয়ার সম্পাদিত বইভর্তি আচার। বুক ডিপোতে পাওয়া যাবে সুলতানা সালমার টক ঝাল মিষ্টি, পিয়াস পাবলিশার্স এনেছে জেবুন নাহার রচিত নানা স্বাদের ভর্তা।

খাদ্যের সঙ্গে পুষ্টির সম্পর্ক নিবিড়। এবারের বইমেলায় রান্নাবিষয়ক বইয়ের পাশাপাশি পুষ্টিবিষয়ক বইও বের হয়েছে। আলেয়া বুক ডিপো থেকে এসেছে লে. কর্নেল ডা. নাজমা বেগমের রান্না ও পুষ্টিজ্ঞান, আলোঘর প্রকাশনী এনেছে মোহাম্মদ আবদুল কুদ্দুসের খাদ্য পুষ্টি ও ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য। বইমেলাতে সব বইয়ে থাকছে ২৫ শতাংশ ছাড়। এ ছাড়া রকমারিসহ বিভিন্ন অনলাইনে অর্ডার দিয়ে আনতে পারেন বইগুলো।