মঞ্চের বাইরে

মঞ্চের বাইরে


শিশু ধর্ষণ

শেষ কোথায়?

প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০১৯      

মেহেরুন নেছা রুমা

'ধর্ষণ করছে তো করছে, আমার মেয়েকে মেরে ফেলল কেন?' এই মুহূর্তে এই বাক্যটিকে আমার কাছে পৃথিবীর সবচেয়ে বেদনাদায়ক বাক্য বলে মনে হয়। এই বেদনা একজন মায়ের। যিনি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তার ফুলের মতো কলিজার টুকরা সায়মার মৃত্যু। শুধু সায়মা নয়, এই আহাজারি সায়মার মতো আরও অসংখ্য মায়ের। সাম্প্রতিক সময়ে ধর্ষণ এক মহামারি আকার ধারণ করেছে। গত ছয় মাসে সারাদেশে ৪৯৬টি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম। এর মধ্যে ২৩ জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। মোট শিশুহত্যা ২০৫, যৌন হয়রানির শিকার ১২০ শিশু।

অবিকল মানুষের মতো দেখতে হলেও এক ধরনের বিকৃত মস্তিস্কের অমানুষের হাতে ভয়াবহ জুলুমের শিকার হচ্ছে শিশুরা। যারা ধর্ষণের কারণ বলে নারীর পোশাককে দায়ী করে, সায়মার মতো শিশুর ক্ষেত্রে তারা কী বলবে? একজন মাদ্রাসা শিক্ষক অসংখ্য ছাত্রীকে তার লালসার শিকারে পরিণত করে আবার কোরআন ছুঁয়ে শপথ করায় বিষয়টি গোপন রাখতে। আমাদের মন অসুস্থ হয়ে পড়ে, আমরা ক্রমেই বোধশক্তিহীন জাতিতে পরিণত হচ্ছি। অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছি এসব খবরে। আমাদের শিশুরা এক ভয়ঙ্কর সময়ে বেড়ে উঠছে অস্বাভাবিকভাবে।

এই ভয়াবহ পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে এবং এর শেষ কোথায় জানতে চেয়েছিলাম বিশেষজ্ঞদের কাছে।