ঘাস ফড়িং

ঘাস ফড়িং

গল্প

চাঁদ নয় পিজা

প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০২০

আমীরুল ইসলামের গল্প

আমাদের গোলারটেকের চারতলা বাড়ি। বাবার আমলে তৈরি। সেদিন ছায়া ছায়া রাতে ছাদে উঠেছি। আকাশে মেঘ নেই। পশ্চিমে জ্বলজ্বলে গোল চাঁদ উঠেছে। রাজিন আমার সাথে। ওকে বললাম

চাঁদ খুব সুন্দর। সবাই চাঁদের দিকে তাকায়। চাঁদকে ভালোবাসে।

রাজিন গোল চাঁদের দিকে তাকিয়ে রইলো।

কেন সুন্দর?

এই প্রশ্নের কোনো উত্তর নাই। সবাই বলে তাই চাঁদ সুন্দর।

কী যে বলো না তুমি?

চাঁদটাকে তোমার কাছে কেমন লাগছে?

রাজিন চাঁদের দিকে তাকায়। গোল সোনালি চাঁদ। ফকফকে আকাশ। দূরে কিছু কিছু তালগাছ। গোলারটেক মাঠ। সুনসান নীরব। তারও পেছনে বুদ্ধিজীবী কবরস্থান। একেবারে নীরব।

রাজিন চাঁদের দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে হঠাৎ আবদার করে,

কাককা- তুমি কি আমাকে একটা পিজা খাওয়াবে?

হঠাৎ পিজার কথা কেন?

খাওয়াবে কিনা বলো?

নিশ্চয়ই। কাল বিকেলেই তোমার জন্য পিজা হাজির হয়ে যাবে। কিন্তু পিজার কথা কেন?

ওহো....

বড় একটা হাই তুলল রাজিন। তারপর মুচকি হেসে বলল,

চাঁদটা দেখতে কিন্তু একদম পিজার মতো।

এবারে আমিও হেসে ফেললাম।

তাই পিজার কথা মনে পড়ল?

দ্যাখো তাকিয়ে- চাঁদটা যেন বড় একটা চিকেন পিজা।