ঘাস ফড়িং

ঘাস ফড়িং


ঘুমের দেশে যাচ্ছে হেসে...

প্রকাশ: ১০ মার্চ ২০২০      
দিনমান ঘুমাই রুপন্তী। সকালে মা ডাকেন, কই রে রুপু, স্কুলে যাবি না? রুপন্তী ঘুমায়। বাবা অফিসে যাবেন। পথে নামিয়ে দেবেন রুপন্তীকে। কিন্তু মেয়ে যে তখনও নাক ডাকে। মা ঘুম থেকে টেনে তুলে রেডি করে দেন। স্কুল ড্রেস পরে রিকশায় বসেও মেয়ের ঘুম। বাবা স্কুলের সামনে নামিয়ে দেন মেয়েকে। কোনোরকম শরীরটা টেনে নিয়ে ক্লাসে ঢুকে রুপন্তী। ফের ঘুম। স্যার ক্লাসে আসেন। পড়ান। রুপন্তী ঘুমের দেশে। ঘুমের মধ্যেই হো হো হাসে। হাসতেই থাকে। হাসতেই থাকে। স্যার রুপন্তীকে ঘুম থেকে তুলে পড়া ধরেন। ওমা, সে গড় গড় করে সব বলে দিচ্ছে। স্যার অবাক। অবাক হরিনারায়ণপুর স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরা। পড়া বলেই ফের সে তলিয়ে গেলো ঘুমের দেশে। আবার হো হো হাসতে থাকে। ঘুমের মধ্যে। কী দেখে ঘুমের মধ্যে এমন হাসে রুপন্তী?

কী দেখে? জানি না! ফড়িং সোনা, তোমার বয়স যদি ১২ বছরের মধ্যে হয়ে থাকে, তাহলে তুমিই লিখে দাও তো বাকি গল্পটা। সবচেয়ে মজার লেখাগুলো ছেপে দেবো আমরা। তাই লেখার সঙ্গে নিজের নাম, বয়স, ক্লাস ও স্কুলের নাম-ঠিকানা লিখে দিও। আমাদের ঠিকানা-

ফড়িং মিয়া, ঘাসফড়িং

দৈনিক সমকাল

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা), ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা