ঘাস ফড়িং

ঘাস ফড়িং


একুশ আমার প্রাণের প্রদীপ

প্রকাশ: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০      

ছড়া লিখেছেন ফারুক নওয়াজ ছবি এঁকেছেন আনিসুজ্জামান সোহেল

আয়রে খুকু আয়..

আয়রে খোকা আয়..

মায়ের ডাকে ঘরের টানে মনটা ছুটে যায়।

মায়ের ভাষায় এমন জাদু, এমন মায়াটান..

মন হয়ে যায় কেমন কেমন উছলে ওঠে প্রাণ।

এমন ভাষার আবেগ মেখে শিল্পী আঁকে ছবি..

এই ভাষাতেই উদাস উদাস পদ্যি গাঁথে কবি।

সুরের সুধা ছড়ায় ভোরের মিষ্টি দোয়েল পাখি

ঘুমলি খুকু আলতো করে খোলেন দু'টি আঁখি।

একতারাতে বাউল ওঠায় এই ভাষাতে সুর..

কথা তো নয় এ-যে আমার ভাষার সমুদ্দুর।



তোমরা কী কেউ জানো?

এই ভাষাকে রুখতে এলো পশ্চিমা সব দানো

সহ্য করা যায় কি বলো উঠল জেগে দেশ..

বীর ছেলেরা মিছিল নিয়ে ছড়ায় ক্ষোভের রেশ।

মিছিল মিছিল ভাষার মিছিল; উঠল দ্রোহের রোল..

কে কাড়ে রে মায়ের ভাষা- কণ্ঠে ওঠে দোল।



হঠাৎ করে চলল গুলি, রক্তে ডাকে বান..

ভায়ের বুকের রুধির থেকে বাজল ভাষার গান।

ভয় পেয়ে যায় পশ্চিমা সেই পাকি-দানোর দল

মায়ের ভাষার বিজয়কেতন উড়ল গগনতল।

রফিক শফিক সালাম ওহি বরকত ও জব্বার..

বীর ছেলেদের রক্তে খোলে মায়ের ভাষার দ্বার।

ফাগুন হাওয়া বলল, খোকন ঘুমিয়ে থাকো রে..

সেই ইতিহাস লেখা আছে সোনার আখরে।



উনিশ শত বায়ান্নতে ফেব্রুয়ারি মাস..

দিনটা ছিল একুশ তারিখ- মায়ের দীর্ঘশ্বাস।

একুশ আমার প্রাণের প্রদীপ; জ্বলবে চিরদিন-

জীবন দিয়ে বীর ছেলেরা শুধল মায়ের ঋণ।