ডাক্তারবাড়ি

ডাক্তারবাড়ি


হেলথ টিপস

গর্ভবতী মায়ের খাবার

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯      

ডা. লুৎফা বেগম লিপি

গর্ভাবস্থা নারী জীবনের সবচেয়ে আরাধ্য সময়ের একটি। এ সময়ে একজন নারীর জীবনযাত্রা, শরীরের গড়নসহ সবকিছুতেই পরিবর্তন আসে। আর এই পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে গিয়ে মাকে অনেক ধরনের অস্বস্তিতে পড়তে হয়। এই অস্বস্তি শুধু শারীরিক গড়ন নয়, তা খাবার-দাবার থেকে শুরু করে রাতে ঘুমানো পর্যন্ত প্রায় প্রতিটি বিষয় নিয়েই হতে পারে। গর্ভাবস্থার শুরু থেকেই মায়ের খাবারের রুচিতে পরিবর্তন আসে। অনেকের বমি বমি ভাব হয়, সকালে কিছুই খেতে পারেন না।

এ ক্ষেত্রে তরমুজ আপনাকে দিতে পারে কিছুটা ভালো স্বাদের সন্ধান। গরমের সময় তো বটেই, এখন বছরের বেশ খানিকটা সময়জুড়েই পাওয়া যায় এই ফল। হালকা লবণ তরমুজের ওপর ছিটিয়ে দিয়ে খেলে অন্তঃসত্ত্বা ভালো স্বাদ পেতে পারেন। গর্ভকালে ঘুম কিংবা শুয়ে থাকার সময় মা কিছুতেই স্বস্তি বোধ করেন না। তলপেটের দিকে বাড়তি নজর রাখতে হয় বলে শুয়েও আরাম পান না কিছুতেই। চাদর কিংবা হালকা কাঁথা দিয়ে একটু জায়গা নিয়ে বালিশের মতো বানিয়ে নিতে পারেন। শোয়ার সময় এটি কিছুটা আরাম দিতে সক্ষম। সবসময় শুয়ে-বসে থাকলে তা মায়ের শরীরে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। একটু হাঁটাচলা শরীরে নতুন করে শক্তি সঞ্চয় করতে পারে।

এ সময় দইয়ের স্বাদ মায়ের মুখে রুচি ঠিক রাখতে সহায়তা করে।

একজন অন্তঃসত্ত্বার উচিত প্রতিদিন কিছুটা দই খাওয়া, যা তার শরীরে পুষ্টি প্রদানের পাশাপাশি রুচিবর্ধক হিসেবেও কাজ করে। স্বাদ ও রুচির পরিবর্তনের ফলে এবং বিভিন্ন হরমোনের পরিবর্তনের মাধ্যমে মায়ের মুখে পানির স্বাদেও পরিবর্তন আসতে পারে। অনেকে প্রয়োজনীয় পানিও এ কারণে পান করতে পারেন না। তাই পানির সঙ্গে হালকা লেবু মিশিয়ে খেলে এ সমস্যা দূর হবে। এ ছাড়া কোনো সমস্যা অনুভব করলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন এবং ওষুধ সেবন করুন।

[কনসালট্যান্ট, গাইনি বিভাগ
ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল]