আফগানিস্তান ইস্যুতে প্রতিবেশী দেশগুলোকে নিয়ে নয়াদিল্লিতে আগামী মাসে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা (এনএসএ) পর্যায়ের বৈঠক ডেকেছে ভারত। ১০ ও ১১ নভেম্বর হতে যাওয়া এই বহুপাক্ষিক বৈঠকে পাকিস্তান, চীন, রাশিয়া, ইরান, তাজিকিস্তান ও উজবেকিস্তানকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। সূত্রের বরাতে সংবাদ সংস্থা এএনআই বলছে, ইতোমধ্যে পাকিস্তানের এনএসএ মুঈদ ইউসুফকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ইসলামাবাদ এ বৈঠকে তাদের এনএসএকে পাঠাতে রাজি হলে, এটাই হবে দিল্লিতে ইউসুফের প্রথম বৈঠক। খবর হিন্দুস্তান টাইমস, দ্য হিন্দু ও এএফপির।

খবরে বলা হয়েছে, ভারতের এনএসএ অজিত দোভালের সভাপতিত্বে আসন্ন ওই বৈঠকে ২০১৯ সালে ইরানে হওয়া আঞ্চলিক নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশ নেওয়া দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে দিল্লি। আফগানিস্তান ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী পাকিস্তানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে কিনা- তা নিশ্চিত করেনি দিল্লি। তবে একাধিক সূত্র ইউসুফকে আমন্ত্রণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। অন্যদিকে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে দাওয়াত পাওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

গত আগস্টে কাবুল দখলের পর সেপ্টেম্বরে অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করে তালেবান। কট্টরপন্থিদের এ উত্থানের নেপথ্যে ইসলামাবাদের জোরালো সমর্থন রয়েছে বলে বিভিন্ন পক্ষ থেকে দাবি তোলা হলে তা বরাবরই অস্বীকার করেছে দেশটি। যদিও তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর পাকিস্তানের সর্বোচ্চ নেতৃত্বকেও খোশমেজাজে প্রশংসা করতে দেখা গেছে। কাবুলের ক্ষমতা তালেবানের হাতে যাওয়ার পর বিভিন্ন ইস্যুতে সেখানে প্রভাব বিস্তার ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা বিষয়ে পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আসছে ভারত ও পাকিস্তান। এদিকে, তালেবানের আগের সরকারকে ভারতের সমর্থনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে দিল্লির প্রতি বিরূপ মনোভাব দেখিয়েছে গোষ্ঠীটি। এমন পরিস্থিতিতে এই বহুপাক্ষিক বৈঠক ডাকাকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। দিল্লির এই বৈঠকে তালেবানকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে না। এ কারণে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। আগস্টের পর তালেবানের প্রতিনিধিদের যেসব বৈঠকে আমন্ত্রণ করা হয়নি, সেখানে পাকিস্তানও তাদের প্রতিনিধি পাঠায়নি।

মস্কোয় বৈঠক কাল :আফগানিস্তানের ভবিষ্যৎ ও নিরাপত্তা বিষয়ে এর প্রতিবেশী দেশগুলোকে নিয়ে বৈঠক ডেকেছে রাশিয়া। আগামীকাল বুধবার মস্কোয় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এ বৈঠকে তালেবানের উপপ্রধানমন্ত্রী অংশ নিচ্ছেন। এতে অংশ নিতে প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে ভারত। সেখানে মুখোমুখি বৈঠক করবেন তারা। এর আগে ৩১ আগস্ট কাতারের দোহায় তালেবানের রাজনৈতিক শাখার উপপ্রধান মোহাম্মদ স্টানিকজাইর সঙ্গে বৈঠক করেন দিল্লির রাষ্ট্রদূত দীপক মিত্তাল।

রুশ কর্তৃপক্ষ বলছে, এ বৈঠকে আফগানিস্তানে কার্যকর অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকারের ওপর জোর দেওয়া হবে। এর আগে একই বিষয়ে রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও পাকিস্তানের প্রতিনিধিদের বৈঠক হবে। এতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মূল উদ্বেগের কারণ নিয়েও আলোচনা হবে।

আফগানিস্তানে পোলিও টিকার কার্যক্রম নভেম্বরে শুরু : জাতিসংঘ :গতকাল জাতিসংঘ জানায়, আফগানিস্তানের লাখ লাখ শিশুর সুরক্ষায় আগামী মাসে পোলিও টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হবে। জাতিসংঘের স্বাস্থ্য ও শিশু সংস্থাগুলো বলছে, তালেবানের পূর্ণ সমর্থনে আগামী ৮ নভেম্বর দেশব্যাপী মারাত্মক রোগের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।

মন্তব্য করুন