আগামী ৩১ অক্টোবর থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে কপ-২৬ জলবায়ু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তবে এ সম্মেলনের ব্যাপারে খুব একটা আশাবাদী হতে পারছেন না জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক আন্দোলনে সাড়া জাগানো সুইডেনের অধিকারকর্মী গ্রেটা টুনবার্গ। বৈশ্বিক উষ্ণতা মোকাবিলায় এই বৈঠক শেষ সুযোগ বলে মন্তব্য করেন তিনি। এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে 'বড় ধরনের পরিবর্তন' আসবে বলে মনে করেন না টুনবার্গ। বাস্তব পরিবর্তনের জন্য বিশ্ব নেতাদের ওপর চাপ অব্যাহত রাখতে অধিকারকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। খবর এএফপির।

২০১৫ সালে প্যারিসে অনুষ্ঠিত বৈঠকের পর এবার সবচেয়ে বড় জলবায়ু সম্মেলন হতে চলেছে। বৈশ্বিক উষ্ণতা বাড়ার গতি কমাতে বিশ্বজুড়ে কার্বন নিঃসরণের হার নির্ধারণের ক্ষেত্রে এ আলোচনাকে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এ নিয়ে আশাবাদী নন টুনবার্গ। জলবায়ু সম্মেলনে অংশ নেওয়ার এক ফাঁকে এএফপির সঙ্গে কথা বলেন টুনবার্গ। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত মনে হচ্ছে না এ সম্মেলনে বড় কোনো পরিবর্তন আসবে। অনবরত আমাদেরকে চাপ দিয়ে যেতে হবে। আমার আশা, অবশ্যই একদিন বুঝতে পারব যে আমরা অস্তিত্ব সংকটের মুখে আছি এবং এরপর ব্যবস্থা নেব। টুনবার্গ বলেন, কপ-২৬-এর মতো আন্তর্জাতিক সম্মেলনগুলোর মধ্য দিয়ে পরিবর্তন আনার সুযোগ রয়েছে। কারণ এগুলোতে অনেক মানুষ একত্র হয়। সুতরাং আমাদের নিশ্চিত হতে হবে যে, সত্যিকারের পরিবর্তনে যে সুযোগ আছে আমরা তা ব্যবহার করছি কিনা।

মন্তব্য করুন