হংকংয়ে বিক্ষোভে সংহতি স্কুল শিক্ষার্থীদেরও

প্রবল হচ্ছে স্বাধীনতার দাবি

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

হংকংয়ে বিক্ষোভে সংহতি স্কুল শিক্ষার্থীদেরও

পাঁচ দফা দাবিতে চলমান বিক্ষোভে সংহতি জানিয়ে সোমবার হংকংজুড়ে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের চিত্র- এএফপি

চীনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ে চলমান সরকারবিরোধী বিক্ষোভে সংহতি জানাতে মানববন্ধন করেছে স্কুল শিক্ষার্থীরা। গতকাল সোমবার হাজার হাজার স্কুল শিক্ষার্থী ইউনিফর্ম পরে এ মানববন্ধনে যোগ দেয়। এ সময় অনেক শিক্ষার্থীকে মুখোশ পরে থাকতে দেখা গেছে। আগের দিন রোববার হংকংকে স্বাধীন করে দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অনুরোধ করে বিক্ষোভ করে মানুষ। গতকাল স্কুল শিক্ষার্থীরাও সে বিক্ষোভকে সমর্থন জানায় এবং এর মধ্য দিয়ে প্রবল হচ্ছে স্বাধীনতার দাবি। খবর রয়টার্সের।

গতকাল সকাল থেকেই স্কুলগুলোর সামনে শিক্ষার্থীরা জড়ো হতে থাকে। তাদের সঙ্গে যোগ দেয় সাবেক শিক্ষার্থীরাও। এ সময় তারা নানা স্লোগান দেয়। তিন মাস আগে চীনে বন্দি প্রত্যর্পণ বিষয়ক একটি বিলের বিরোধিতা করে হংকংয়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে সে বিক্ষোভ সহিংস রূপ নেয়। বিক্ষোভকারীরা পাঁচ দফা দাবি তোলে। যার মধ্যে রয়েছে- চীনপন্থি হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের পদত্যাগ, বিক্ষোভের সংঘর্ষগুলোকে 'দাঙ্গা' আখ্যা না দেওয়া, পুলিশি নির্যাতনের স্বাধীন তদন্ত এবং আটককৃতদের নিঃশর্ত মুক্তি। বিক্ষোভের মুখে বিল প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দেন লাম। তাতেও শান্ত হয়নি হংকং। এবার স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে বিক্ষোভকারীরা। এটি তাদের পাঁচ নম্বর দাবি, যা দমন করতে চীন বদ্ধপরিকর।

এদিকে এসব ঘটনায় বেজায় চটেছে চীন। হংকংয়ের পরিস্থিতি ক্রমেই উত্তপ্ত করে তোলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনকে দায়ী করেছে বেইজিং। চীনা সরকারের মুখপত্র দ্য চায়না ডেইলি লিখেছে, রোববারের বিক্ষোভের পেছনে যে বিদেশি শক্তির হাত ছিল, তা পরিস্কার।