দুই সহকর্মীকে অনৈতিক প্রস্তাব প্রধান শিক্ষকের তদন্ত কমিটি গঠন

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০১৯      

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

তাড়াশে প্রধান শিক্ষক ভবেশ চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে একই বিদ্যালয়ের সহকর্মী দুই শিক্ষিকাকে অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। রোববার দুই শিক্ষিকা এর প্রতিকার চেয়ে তাড়াশ ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এদিকে অভিযোগ আমলে নিয়ে তাড়াশ ইউএনও সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাফিজুর রহমানকে প্রধান করে ৩ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। কমিটির অন্য দুই সদস্য সহকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মাহমুদুর রহমান ও আব্দুল লতিফ। তাদের আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলার মাধাইনগর ইউনিয়নের সরাপপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ভবেশ চন্দ্র রায় বিভিন্ন সময়ে একই বিদ্যালয়ের দুই সহকারী শিক্ষককে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। বিষয়টি একই বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক শাজাহান আলী ও জহুরুল ইসলামকে জানালে তারা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে জানান। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ভবেশ চন্দ্র রায়ের মোবাইল ফোনে ৪০ বার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আখতারুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দেওয়ার সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তাড়াশ ইউএনও (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ওবায়েদুল্লাহ জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।