যৌতুক দাবিতে রূপগঞ্জে ২ গৃহবধূকে নির্যাতন

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০১৯

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জে দাবিকৃত যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় পৃথক স্থানে দুই গৃহবধূকে নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে এক গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার তারাব পৌরসভার দক্ষিণ মাসাব ও কায়েতপাড়া ইউনিয়নের পূর্বগ্রাম এলাকায় এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার দুই গৃহবধূর অভিযোগ থেকে জানা যায়, দক্ষিণ মাসাব এলাকার সুরুজ মিয়ার ছেলে রুহুল আমিনের সঙ্গে মদিনাবাগ এলাকার ফজলে করিমের মেয়ে কামরুন্নাহারের বিয়ে হয়। বেশকিছু দিন ধরে স্বামী রুহুল আমিন, শ্বশুর সুরুজ মিয়া, শাশুড়ি রোকসানা বেগম, দেবর আল-আমিন কামরুন্নাহারকে তার বাবার বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা যৌতুক এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে। যৌতুকের টাকা না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন কামরুন্নাহারকে বেধড়ক পিটিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

অপরদিকে, পূর্বগ্রাম এলাকার আবু সাঈদের ছেলের সঙ্গে ভুলতা টেকপাড়া এলাকার আজিজুল হকের মেয়ে কাশফিয়া আক্তার তুলির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় তুলিকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। গৃহবধূ নির্যাতনের ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় পৃথক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদ হাসান জানান, এ ধরনের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।