অভিশপ্ত দ্বীপে নিঃসঙ্গ এডিথ

প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

তাবাসসুম রহমান

ফিঞ্চ গোত্রের সবাই অদ্ভুতভাবে মারা গেছে আর সদস্যদের অধিকাংশই ছিল কম বয়সী। এডিথ হচ্ছে ফিঞ্চ পরিবারের শেষ সদস্য। যে কি-না ফিরে এসে দেখতে পায় তার গোত্রের নিশ্চিহ্ন হওয়ার চিত্র। অভিশাপের কারণেই সবার এমন মৃত্যু হয়েছে বলে জানতে পারে সে। অভিশাপের কারণ খুঁজতে থাকে নিঃসঙ্গ এডিথ। কোনো একজন ফিঞ্চের মৃত্যুর পর পরই সংশ্নিষ্ট ব্যক্তির শোবার ঘর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আর কখনই সেটি ব্যবহার করা হয়নি। সেই চকচকে টাওয়ার, সব সময় হৈ-হুল্লোড়ে মেতে থাকা দ্বীপটি আজ যেন মৃত্যুপুরী। এমন কাহিনীর ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে 'হোয়াট রিমেইনস অব এডিথ ফিঞ্চ' গেমটি। বিখ্যাত নির্মাতা জায়ান্ট স্প্যারোর বানানো এই গেমটি অ্যাডভেঞ্চারপ্রিয়দের পছন্দের তালিকায় থাকবে। গেমের শুরুতে কম বয়সী এক নারী এডিথ ফিঞ্চের ছেলেবেলায় কাটানো বাড়ি দেখতে গিয়ে দ্বীপের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায়। পত্রিকার সংবাদ অনুযায়ী, এডিথ ফিঞ্চ ছাড়া সবাই মারা গেছে। গোত্রের ওপর অভিশাপ রয়েছে বলেই এমনটা ঘটেছে। আর সে দ্বীপে গিয়েই নানা ভয়ানক ও ভৌতিক বিপদে পড়ে ফিঞ্চ। তার গোত্রকে সেই অভিশাপ থেকে মুক্ত করা হবে গেমারের মূল কাজ। পেল্গস্টেশন ৪, উইন্ডোজ এবং এক্সবক্স ওয়ানের জন্য বানানো গেমটি সমালোচকদেরও নজর কেড়েছে।

গেমারকে এডিথ ফিঞ্চের গলার স্বর শুনে শুনে খেলতে হবে। গলার স্বর অনুসরণ করে রৈখিক অবস্থানের ঘরগুলোকে ঘুরেফিরে দেখতে হবে। স্মৃতি রোমন্থন করতে হবে, কখনও-বা অনুসরণ করতে হবে পায়ের ছাপ আবার কখনও বইয়ের পাতাও ওল্টানোর দরকার হবে। গেমটি খেলতে হলে এডিথের গলার স্বর অনুসরণ করতে হবে। খেলতে খেলতেই উদ্‌ঘাটন করতে হবে ফিঞ্চ পরিবারের ওপর অভিশাপের রহস্য।

প্রয়োজনীয় সিস্টেমস

গেমটি খেলতে লাগবে ইন্টেল কোর আই-৩ ২১২৫ ৩.৩ গিগাহার্টজ প্রসেসর বা এএমডি ফেনোম-২ এক্স-৪ ২০। ইন্টেল জি-ফোর্স ৭৫০ অথবা এএমডি রেডয়ন এইচডি ৭৭৯০ গ্রাফিক্স কার্ড, র‌্যাম নূ্যনতম ৪ জিবি। ডাইরেক্ট-এক্স: ১১ এবং হার্ডডিক্সে ৫ জিবি ফাঁকা জায়গা।