হবিগঞ্জে তিন খুনের ঘটনায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশ: ২৩ আগস্ট ২০১৯

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের পুরান পাথারিয়া গ্রামে চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এসএম নাসিম রেজার আদালত ঘটনার ২১ বছর পর এ রায় ঘোষণা করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর আল আমিন হোসেন।

তিনি জানান, রায় ঘোষণার সময় দ প্রাপ্ত চার আসামিই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলো- পুরান পাথারিয়া গ্রামের হাজি ইসমাইলের ছেলে করম আলী, মৃত হেলিম উল্লার ছেলে আলী মোহাম্মদ, আব্দুল হাশিমের ছেলে সুরুজ আলী ও মৃত সঞ্জব আলীর ছেলে তুরাব আলী।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর পাথারিয়া গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহেদ আলী ও আলী আহম্মদের লোকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে শাহেদ আলীর পক্ষের সামছুল হক ও আফিল উদ্দিন এবং আলী আহমদ পক্ষের নূর মোহাম্মদ নিহত হন। এ ছাড়া উভয় পক্ষের অন্তত শতাধিক লোকজন আহত হন। নূর মোহাম্মদ খুনের ঘটনায় তার ভাই আলী আহম্মদ বাদী হয়ে বানিয়াচং থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ১৯৯৯ সালের ১১ আগস্ট এ মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করা হয়। মামলায় ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত করম আলীকে যাবজ্জীবন কারাদে র আদেশ দেন। অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

এদিকে, অপর পক্ষে নিহত দু'জনের আত্মীয় আতিকুন্নেছা ঘটনার পর দিন বাদী হয়ে ৬২ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। মামলায় নয়জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আসামি আলী মোহাম্মদ, সুরুজ আলী ও তুরাব আলীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেন। অন্য আসামিদের বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট সালেহ আহমেদ।