বোর্ডের সঙ্গে কথা বলবেন সাকিব

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম থেকে

পাঁচ দিনের ম্যাচে তিন দিনই সংবাদ সম্মেলনে এলেন সাকিব আল হাসান। এদিক থেকে একটা রেকর্ডই করে ফেলেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। এত বেশিবার তার সংবাদ সম্মেলনে আসার কারণও আছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে একজনও পারফরমার ছিলেন না। প্রতিপক্ষের কাছে কোণঠাসা হয়ে পড়া দলের খেলোয়াড়দের কাছে হয়তো কোণঠাসা হয়ে পড়েছিলেন সাকিব। এ ছাড়া সতীর্থদের চাপমুক্ত রাখতেও এই কৌশল বেছে নিয়েছিলেন তিনি। যে মানুষটি সহ-খেলোয়াড়দের এভাবে আগলে রাখতে পছন্দ করেন হঠাৎ করে কেন তার মনে হলো, নেতৃত্ব দিতে না হলে ভালো থাকবেন তিনি। তবে সাকিব এটাও বলেছেন, নেতৃত্ব দিতে হলে জাতীয় দল পুনর্গঠন করতে বিসিবির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন, 'যদি নেতৃত্ব না দিতে হয় আমার জন্য সবচেয়ে ভালো হবে। আমার মনে হয় সেটা আমার ক্রিকেটের জন্যই ভালোই হবে। আর যদি নেতৃত্ব দিতেই হয়, তবে ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা করার প্রয়োজন আছে।'

বিশ্বকাপ থেকেই বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স নিয়ে খুশি ছিলেন না সাকিব। ব্যক্তিগত স্বার্থকে বড় করে দেখায় বিশ্বকাপে একজন খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দেওয়ার পক্ষেও ছিলেন তিনি। এ নিয়ে গত কিছুদিন তুলকালাম ঘটে গেছে দেশের ক্রিকেটে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে দলের পারফরম্যান্স নিয়েও প্রথম দিন থেকেই বিরক্ত ছিলেন তিনি। ম্যাচের চতুর্থ দিন সংবাদ সম্মেলনে নিজের উদাহরণ টেনে বলেছিলেন, আমি ভালো করলে অন্যরা পারবে না কেন। সামর্থ্য থাকলেই হবে না, মাঠে সামর্থ্য দেখানোর পক্ষে তিনি।