ফিলিপাইনে আত্মবিশ্বাসী তীরন্দাজরা

আরচারির পাশে মধুমতি ব্যাংক, সাতটি টুর্নামেন্টের পৃষ্ঠপোষক

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ফিলিপাইনে আত্মবিশ্বাসী তীরন্দাজরা

এশিয়া কাপ ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং আরচারি টুর্নামেন্ট স্টেজ থ্রিতে অংশ নিতে ফিলিপাইনে পৌঁছেছেন বাংলাদেশের চার আরচার। এখন অপেক্ষা দারুণ কিছুর- সংগৃহীত

প্রতিষ্ঠার জন্মলগ্ন থেকেই ক্রীড়াবান্ধব ব্যাংক হিসেবে নিয়মিতভাবে বিভিন্ন ক্রীড়া কার্যক্রম পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড। ২০১৫ সালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপের অফিসিয়াল পার্টনার ছিল মধুমতি ব্যাংক। এরপর যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে বাংলাদেশের ৬৫টি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে এ বছর অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পের পৃষ্ঠপোষকতা করে এ ব্যাংকটি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বাংলাদেশের সম্ভাবনায় খেলা এবং অলিম্পিকে পদক জয়ের স্বপ্ন দেখা আরচারির পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ আরচারি ফেডারেশনকে ৩০ লাখ টাকার চেক তুলে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

গলফার সিদ্দিকুর রহমানের পর সরাসরি অলিম্পিকে খেলার টিকিট পান তীরন্দাজ মোহাম্মদ রুমান সানা। সম্ভাবনাময় এই ফেডারেশনের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড। গত ৩০ আগস্ট বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনে (বিওএ) এক সংবাদ সম্মেলনে আরচারির পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন মধুমতি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোহাম্মদ শফিউল আজম। সেই সময় তিনি আরচারি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক রাজীব উদ্দিন আহমেদের হাতে ৩০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন। সংবাদ সম্মেলনে মধুমতি ব্যাংকের বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

আরচারিতে মধুমতি ব্যাংকের যাত্রা শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপ ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং টুর্নামেন্ট স্টেজ থ্রি দিয়ে। আজ ফিলিপাইনের ক্লার্ক সিটিতে শুরু হচ্ছে এই প্রতিযোগিতা। এশিয়া কাপ ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং টুর্নামেন্টের জন্য ফিলিপাইনে পৌঁছে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ দল। আজ উদ্বোধন এবং আগামীকাল কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডের খেলা অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ থেকে মোট চারজন আরচার এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে। রিকার্ব ডিভিশনে পুরুষ একক, পুরুষ দলীয়, নারী একক এবং মিশ্র দ্বৈতে ইভেন্টে খেলছেন রুমান সানা, মোহাম্মদ তামিমুল ইসলাম, হাকিম আহমেদ রুবেল ও বিউটি রায়। কোচ হিসেবে আছেন মার্টিন ফ্রেডরিক এবং দলনেতা হিসেবে আছেন আনিসুল রহমান। শুধু এশিয়া কাপ ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং টুর্নামেন্টই নয়, আরও ছয়টি প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা করবে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড।

২০১৯ সালে আরচারির ঘরোয়া তিনটি প্রতিযোগিতার পৃষ্ঠপোষকতা করবে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড। মধুমতি ব্যাংক ইনডোর আরচারি চ্যাম্পিয়নশিপ, মধুমতি ব্যাংক ২০১৯ বাংলাদেশ কাপ স্টেজ-৩, মধুমতি ব্যাংক বিজয় দিবস উন্মুক্ত আরচারি টুর্নামেন্ট। ২০২০ সালেও আর তিনটি ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় আরচারির সঙ্গে থাকবে এ প্রতিষ্ঠানটি। মধুমতি ব্যাংক ২০২০ বাংলাদেশ কাপ, স্টেজ-১, মধুমতি ব্যাংক স্বাধীনতা দিবস উন্মুক্ত আরচারি টুর্নামেন্ট এবং মধুমতি ব্যাংক ২০২০ বাংলাদেশ কাপ স্টেজ-২।

শুধু ফুটবল, আরচারি কিংবা বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পই নয়, আরও ছোট-বড় অনেক ফেডারেশনকে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড। মাত্র ছয় বছর হয়েছে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ব্যাংকটি। ইতিমধ্যে ক্রীড়াবান্ধব ব্যাংক হিসেবে সুনাম কুড়িয়েছে মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড।