ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে কামিন্সের তোপ

ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া চতুর্থ টেস্ট

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

টিম পেইনের যেন হঠাৎ করেই মনে হলো, ইনিংস ঘোষণা করা উচিত। চতুর্থ দিনের শেষবেলায় ইংল্যান্ডকে কয়েক ওভার ব্যাট করার সুযোগ দেওয়া এবং সেই কয়েক ওভারেই দ্রুত এক-দুটি উইকেট তুলে নেওয়া- এ-ই হয়তো ছিল তার ভাবনা। অধিনায়কের সেই ভাবনাকে কি দারুণভাবেই না বাস্তবে রূপ দিলেন প্যাট কামিন্স! ৩৮৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ড কামিন্সের প্রথম ওভারেই হারাল দুই উইকেট। এই পেসার এরপর তোপ দেগেছেন পঞ্চম দিন সকালেও। তার আগুনে বোলিংয়ে ৯৩ রান তুলতেই ইংলিশরা খুইয়েছে পাঁচ উইকেট।

স্টিভেন স্মিথের ৮২ ও ম্যাথু ওয়েডের ৩৪ রানে ভর দিয়ে ৬ উইকেটে ১৮৬ রান তুলে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেছিল অস্ট্রেলিয়া। বোলিংয়ে নেমে প্রথম ওভারেই টানা দুই বলে ররি বার্নস ও জো রুটকে তুলে নেন কামিন্স। ২ উইকেটে ১৮ রান নিয়ে শেষ দিনের খেলা শুরু করা ইংল্যান্ড এরপর জো ডেনলি ও জেসন রয়ের ব্যাটে ভর করে ভালোই এগোচ্ছিল। তবে এরপরই আবার আঘাত হানেন কামিন্স। ৩১ রান করা রয়কে ফিরিয়ে ভাঙেন ৬৬ রানের জুটি। হেডিংলিতে অবিশ্বাস্য এক ম্যাচজয়ের নায়ক বেন স্টোকস এদিন ব্যর্থ। ১ রান করে তিনিও ফেরেন কামিন্সের বলে। আর ফিফটি করার পরপরই ৫৩ রানে নাথান লায়নের বলে আউট হন ডেনলি। ষষ্ঠ উইকেটে এরপর প্রতিরোধ গড়েন জস বাটলার ও জনি বেয়ারস্টো। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তাদের অবিচ্ছিন্ন ৪১ রানের জুটিতে ১৩৪ রান তুলেছিল স্বাগতিকরা। বেয়ারস্টো ২২ ও বাটলার ১৭ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া :৪৯৭/৮ ডি. ও ১৮৬/৬ ডি. (স্মিথ ৮২, ওয়েড ৩৪, পেইন ২৩*; আর্চার ৩/৪৫, ব্রড ২/৫৪)
ইংল্যান্ড :৩০১ ও ১৩৪/৫ (ডেনলি ৫৩, রয় ৩১, বেয়ারস্টো ২২*; কামিন্স ৪/৩৬, লায়ন ১/৪৫)