হেডিংলিতে খেলবেন না স্মিথ

প্রকাশ: ২১ আগস্ট ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

শঙ্কাটাই সত্যি হলো। ঘাড়ের চোটের কারণে হেডিংলি টেস্ট থেকে ছিটকে গেলেন স্টিভেন স্মিথ। জানা গেছে, কনকাশন (মাথা ও ঘাড়ের চোট) টেস্টে পাস করতে পারেননি তিনি। তাই তাকে মাঠে নামানোর ঝুঁকি নিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া। স্মিথের অবস্থার এখনও তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। গতকাল সকালেও ঘুম থেকে ওঠার পর মাথাব্যথা ও ঝিমঝিম করেছে। বৃহস্পতিবার থেকে হেডিংলিতে শুরু হবে অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্ট।

যদিও সোমবার লিডসে সহঅধিনায়ক ট্রাভিস হেড জানিয়েছিলেন, স্মিথের অবস্থা ভালোর দিকে। তবে মঙ্গলবার দলের সঙ্গে মাঠে গেলেও অনুশীলন করেননি স্মিথ। হেডিংলির উইকেট দেখে অনুশীলন শুরুর আগে সবার সঙ্গে বৃত্তাকারে দাঁড়িয়েও ছিলেন তিনি। কিন্তু এর পরই কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের সঙ্গে কথা বলতে বলতে মাঠের মাঝখানে চলে যান। এরপর দলের ডাক্তার রিচার্ড শ'র সঙ্গেও দীর্ঘ সময় আলোচনা করেন। পুরো দল তখন ফিল্ডিং প্র্যাকটিস শুরু করে দিয়েছে। সাবেক অধিনায়ক ও এই সিরিজে ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করা মার্ক টেলরও এগিয়ে এসে স্মিথের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর তাদের সঙ্গে যোগ দেন কোচ ল্যাঙ্গার, রিকি পন্টিং ও স্টিভ ওয়াহ। লম্বা আলোচনার পর ল্যাঙ্গার জানিয়ে দেন যে, তৃতীয় টেস্টে খেলছেন না স্মিথ। তার জায়গায় সম্ভবত সুযোগ পাচ্ছেন আগের টেস্টে ইতিহাসের প্রথম কনকাশন বদলি হিসেবে নেমে ম্যাচ বাঁচানো হাফ সেঞ্চুরি করা মারনস ল্যাবুশেন। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে অনুষ্ঠেয় চতুর্থ টেস্টে স্মিথকে পাওয়ার আশা করছে অস্ট্রেলিয়া।

লর্ডস টেস্টের চতুর্থ দিন বিকেলে জোফরা আর্চারের ৯২.৪ মাইল গতির বাউন্সার আঘাত হেনেছিল স্মিথের বাঁ কানের নিচে। বলের আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়লেও চল্লিশ মিনিট বিশ্রাম নিয়ে সেদিন ব্যাটিং করেছিলেন তিনি। তবে পরের দিন অবস্থা খারাপ হওয়ায় লর্ডস টেস্টের শেষ দিনে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন।