ব্যাডমিন্টনে চলছে কোচ নাটক

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০১৯      

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ডিসেম্বরে নেপালে অনুষ্ঠিত হবে দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ ক্রীড়া আসর এসএ গেমস। ২৫টি ডিসিপ্লিনে অংশ নেবে বাংলাদেশ। এই আসর সামনে রেখে ক্যাম্প চালু করেছে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। ১৫টি স্থানে প্রস্তুতি ক্যাম্প করা হয়েছে। যত নাটক ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনে। কোচ নিয়ে নাটক চলছেই ব্যাডমিন্টনে।

এসএ গেমসের জন্য ব্যাডমিন্টন ক্যাম্পে প্রথম কোচ করা হয় নিখিল চন্দ্র ধর, গৌতম চন্দ্র পাল ও মারুফ আলমকে। কিন্তু এই তিন কোচের অধীনে ক্যাম্প না করার সিদ্ধান্ত নেন দুই নারী শাটলার শাপলা আক্তার ও এলিনা সুলতানা। ফেডারেশনের সভাপতি বরাবর চিঠি দিয়ে কোচ বদলের দাবি জানান তারা। শাপলা ও এলিনার দাবি মেনে নিয়ে মারুফ আলম ও গৌতম চন্দ্রকে সরিয়ে রোববার নতুন কোচ হিসেবে ফেডারেশন নিয়োগ দেয় সাবেক দুই শাটলার এনায়েত উল্লাহ খান ও ওহিদুজ্জামান রাজুকে। স্বামীদের কোচ পাওয়ার পর ব্যাডমিন্টনের সমস্যার সমাধান হয়েছে বলেই ধরে নিয়েছিল সবাই। কিন্তু কোচ নাটক শেষ হয়েও হলো না। অব্যাহতি চেয়ে গতকাল বিকেলে ফেডারেশনে চিঠি দিয়েছেন রাজু। ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বরাবর লেখা চিঠিতে রাজু অব্যাহতিপত্রে ব্যবসায়িক ব্যস্ততার কথা লিখেছেন, 'আমার ব্যবসায়িক এবং কর্ম-সংক্রান্ত কারণে দেশে ও দেশের বাইরে পূর্বনির্ধারিত কিছু কার্যক্রম থাকায় এসএ গেমসের মতো বড় আসরের কার্যপরিচালনা করা এবং পাঁচ মাস সময় দেওয়া আমার পক্ষে কষ্টসাধ্য। যা ক্রীড়াবিদদের প্রশিক্ষণে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। তাই আমার অপারগতার বিষয়টি বিবেচনা করে বাধিত করবেন।'

বর্তমানে ঢাকার বাইরে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন বাহার। ফেডারেশনে চিঠি আসার খবর পেয়েছেন। ৭ তারিখে ক্যাম্প বন্ধ হয়ে যাবে। ঈদের আগে এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন বাহার, 'আমি চিঠি পেয়ে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বসে করণীয় ঠিক করব।'