চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জয়, জিয়ানলুইজি বুফনের কাছে স্বপ্নের মতো। ২০০১ সাল থেকে জুভেন্তাসের জার্সিতে খেলছেন তিনি। দীর্ঘ এই পথ পরিক্রমায় জুভদের হয়ে জিতেছেন অসংখ্য খেতাব। শুধু বাকি রইল চ্যাম্পিয়ন্স লীগ। এই একটা মুকুটই ছোঁয়া হলো না তার। সর্বশেষ গত বছর শিরোপার জন্য তুমুল লড়াই করেও ফিরতে হয়েছে খালি হাতে। রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে একরাশ হতাশার সঙ্গে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এবারও কি তেমন কিছু দেখতে হবে? উত্তরে কত কিছুই না বলেছেন এই ইতালিয়ান। শুনিয়েছেন প্রতিপক্ষের ভয়ঙ্কর রূপের গল্প। জানিয়েছেন নিজের দলের আশা-ভরসার কথা। আজ গভীর রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে তার দল জুভেন্তাস মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদের। এই ম্যাচকে ঘিরে বুফনের সিংহভাগ আলাপান।
 
-২০১৭ সালের ৩ জুন কার্ডিফে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ট্রফি হাতছাড়া হয়। প্রায় ৩০০ দিন হলো। কী মনে হয় এবার?

বুফন :হ্যাঁ, আমার মনে আছে। তবে আমি এও জানি, এ মুহূর্তে আমার বয়স ৪০ বছর। অনেক কিছুই আগের মতো নেই। দলে একাধিক রদবদল হয়েছে। অবশ্য আমি খুব একটা বদলাইনি। আমার বিশ্বাস, চেষ্টা করলে কার্ডিফের সেই তিক্ততা এবার ভুলিয়ে দেওয়া সম্ভব।
 
-তাহলে আপনি বলছেন, দুই লেগ মিলিয়ে রিয়ালকে হারানোর সামর্থ্য জুভেন্তাসের আছে, কিন্তু ফাইনালে কেন এটা করতে পারছে না?

বুফন :এটার কোনো ব্যাখ্যা আমার কাছে নেই। কিন্তু আমি ফাইনালেও কাজটা করতে চাই। বার্সেলোনার বিপক্ষে আমাদের একই জিনিস হয়েছে। আমরা ১৮০ মিনিটের লড়াইয়ে জিততে পারি। তবে ৯০ মিনিটের মধ্যে হারতেও পারি। ফাইনালেও তেমন কিছুর আশায় রইলাম। আসলে এ বিষয়ে বুঝিয়ে বলা একটু কঠিনই। তবে এই পর্যায়ে এসে কেমন খেলতে হয় আমরা ভালো করেই জানি।
 
-ফাইনাল ম্যাচটা কেমন হতে পারে। আপনার অভিমত যদি বলতেন?

বুফন :অবশ্যই, যদিও এটা পরিবর্তনের কিছু নেই। সহজ করে বললে, যে দল সে দিন মাঠে সেরা ফুটবল খেলতে পারবে শিরোপা তাদের ঘরেই যাবে। তবে যারা হারবে খুব বেশি বড় ব্যবধানে নয়। এখন আমাদের যেটা করতে হবে, নিজেদের উজাড় করে দিয়ে লড়ে যাওয়া এবং নির্দিষ্ট পথ ধরে এগোনো।
 
-রিয়াল মাদ্রিদকে হারাতে জুভেন্তাস কী পরিকল্পনা করেছে, বলতে পারেন?

বুফন :এটা আমি হলফ করে বলতে পারব না। মাঠেই তার প্রমাণ মিলবে। তাদের পরাজিত করতে আমরা সেরাটা দিয়ে লড়ব। তবে পরিকল্পনার কথা আমাদের কোচই ভালো বলতে পারবেন।
 
-যখন জুভেন্তাস কার্ডিফে হেরে যায় আপনি বলেছিলেন চ্যাম্পিয়ন্স লীগের মুকুট জেতা অসম্ভব স্বপ্নের মতো। আবারও ইউরোপসেরা মঞ্চে রিয়াল মাদ্রিদের সামনে আপনার দল। এবারও কি তেমন কিছু মনে হচ্ছে?

বুফন :জুভেন্তাসের চেয়ে রিয়াল মাদ্রিদে অনেক ভালো দল। এটা আমার মুখের কথা না। অতীত পরিসংখ্যানও তাদের পক্ষে কথা বলবে। লস ব্লাঙ্কোসদের খেতাবের অঙ্কটা হিসাব করলে আপনি উত্তরটা পেয়ে যাবেন। তবে আমি মনে করি, বর্তমান সময়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জেতা স্বপ্নের মতো। কারণ এই প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করা মোটেও চাট্টিখানি কথা নয়। আমরা রিয়ালের বিপক্ষে লড়াই করব ঠিকই। কিন্তু ইতিহাস, পেছনের বছরগুলো আর অর্জনের দিক থেকে তারা অন্যদের চেয়ে কিছুটা আলাদা ও স্পেশাল।
 
-কী কারণে রিয়াল অন্যদের চেয়ে আলাদা দল?

বুফন :কিছু কারণে রিয়াল বিশ্বের সেরা একটি দল। এটা নিয়ে কারও সন্দেহ আছে? শেষ চার মৌসুমে তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা জিতেছে তারা। এটাই তার বড় প্রমাণ। আসলে রিয়ালই নাম্বার ওয়ান, কেউই এটা অস্বীকার করতে পারবেন না।
 
-আপনার কী ধারণা, রিয়াল কি ইউরোপের অপ্রতিরোধ্য দল?

বুফন :না, কোনো দলই অজেয় নয়। তাদের হারানো কঠিন। আমি বলতে চাই রিয়ালই ফেভারিট। তবে জয়-পরাজয়ের অনুপাতটা ফিফটি-ফিফটি। আমরাও আশাবাদী। জুভেন্তাসও ভালো একটা দল। তারা জানে কী করে শিরোপা জিততে হয়।
 
-আপনি কি মনে করেন, কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগটা সেই কার্ডিফের ফাইনালের মতো হবে, নাকি তিন বছর আগের মতো ড্র হবে?

বুফন :প্রতিটি ম্যাচই আলাদা। আমি এই ম্যাচকে কার্ডিফের সঙ্গে মেলাতে চাই না। আমরা ভালো খেলছি, কিন্তু ফেভারিট নই। আমরা জানি, রিয়ালের বিপক্ষে ভালো করতে হলে ম্যাচের শেষ মিনিট অবধি লড়তে হবে। দ্বিতীয় লেগ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে, সেখানেও সমান গুরুত্ব দিতে হবে।
 
-দুর্দান্ত ফর্মে আছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, তিনি চাচ্ছেন ইতিহাস গড়তে। ঠিক তো?

বুফন :রোনালদোর প্রতি আমার সীমাহীন শ্রদ্ধা। সে বয়সের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে আরও এগিয়ে নিচ্ছে। আমি তাকে খুবই সম্মান করি, কারণ সে এমন একজন ফুটবলার, যে জানে কখন কী করতে হবে। সম্প্রতি সে দেখিয়েছে কতটা বুদ্ধিমান। গোলমুখে সে রিয়েল হিরো, মূর্তিমান আতঙ্ক। আমি খুবই ভাগ্যবান ব্রাজিলের রোনালদো ও ইব্রার বিপক্ষে খেলতে পেরেছি। কিন্তু ক্রিশ্চিয়ানো রেকর্ডের বরপুত্র। সে একের পর এক রেকর্ড গড়েই চলছে। আমি আবারও বলব, সে আমার পরম শ্রদ্ধার পাত্র।
 
-আপনার বন্ধু ইকার ক্যাসিয়াস এই সোমবার হাজারতম ম্যাচে অংশ নেবে। এটা নিয়ে কী বলবেন?

বুফন :দলের পরে যদি আমি কাউকে গুরুত্ব দিতে চাই, তবে ক্যাসিয়াসের নামটা বলব। আমার সব ভালোবাসা তার জন্য রইল। প্রথমে রিয়ালে এরপর পোর্তোতে সে দারুণ খেলেছে। ক্যাসিয়াস যে মাপের খেলোয়াড়, সেক্ষেত্রে তাকে কখনোই ছোট করে দেখার সুযোগ নেই।

মন্তব্য করুন