অধ্যক্ষের পরামর্শ

লেখা শেষ করে অবশ্যই রিভিশন দেবে

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯      

স্বপ্না সরকার, সিনিয়র শিক্ষক, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

স্নেহের শিক্ষার্থী সোনামণিদের জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা। পরীক্ষা একেবারে দোরগোড়ায়। নিশ্চয়ই প্রতিটি বিষয়ের প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। তবে এ মুহূর্তে যে বিষয়টি বেশি দরকার তা হলো আত্মবিশ্বাস। তুমি সব সময় ভাববে- আমি পারবই। কোনো দুশ্চিন্তার কারণ নেই। তুমি যা যা স্কুলে পড়েছ, পরীক্ষা দিয়েছ; সে রকম প্রশ্নই হবে সমাপনী পরীক্ষায়। কাজেই অযথা ভয় না পেয়ে প্রতিটি বিষয়ে ভালো ধারণা রাখ। কঠিন বিষয়গুলো বারবার দেখ। আর পরীক্ষা হলে প্রশ্ন পাওয়ার পর প্রশ্নটি ভালো করে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বে। তারপর কোন উত্তরগুলো ভালোভাবে দিতে পারবে, সেগুলো দাগিয়ে নেবে। সময়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে, যেন ঘণ্টা পড়ার ১০ মিনিট আগেই লেখা শেষ হয়। খাতা পরিচ্ছন্ন রাখবে। কঠিন বানানগুলো ভেঙে উচ্চারণ করে লিখবে, তাহলে বানান ভুল হওয়ার আশঙ্কা কম থাকে। পরীক্ষা হলে অপ্রয়োজনীয় কথা বলে সময় নষ্ট করবে না। কোনো সমস্যা মনে করলে ডিউটিরত শিক্ষকের কাছে বিনয়ের সঙ্গে তা জানাবে। পরীক্ষা কেন্দ্রে অন্তত পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে পৌঁছবে। আরেকটি কথা মনে রাখতে হবে, তা হলো শুধু পড়লেই হবে না, বেশি বেশি লেখার অভ্যাস করতে হবে। কারণ পরীক্ষার হলে লিখেই উত্তর দিতে হবে। সবশেষে তোমাদের বলব, মনোবল হারালে কিংবা দুশ্চিন্তা করলে মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে। তাই দৃঢ় মনোবল রেখে পরীক্ষার হলে ঢুকবে। দেখবে হাসতে হাসতে হল থেকে বেরোতে পারবে। তোমাদের সবার সফলতা কামনা করছি।