ফরিদপুরে সচেতনতামূলক প্রচারণা

প্রকাশ: ০৬ আগস্ট ২০১৯      

হাসানউজ্জামান

যৌন হয়রানির বেশিরভাগ ঘটনাই ঘটে বাড়িতে, আত্মীয় বা পারিবারিক বন্ধুদের বাড়িতে, স্টু্কলে, স্টু্কলে যাওয়ার পথে, পরিচিত পরিবেশে পরিচিতজন ছাড়া শিশুদের যৌন হয়রানির ঘটনার নজির খুবই কম। এমন প্রেক্ষাপটে 'বর্ণমালা আমার দুঃখিনী বর্ণমালা। আমার এই অক্ষিগোলকের মাঝে তুমি আঁখিতারা'। একগুচ্ছ স্বপ্নমাখা আবেগী এই স্লোগান নিয়ে কলেজের ক্লাস শেষে পাওয়া অবসরটুকু ফরিদপুরের ক'জন উদ্যমী তরুণী কাজে লাগাচ্ছে মেয়ে শিশুদের সুরক্ষা ও সচেতন করতে। 'নন্দিতা সুরক্ষা' নামে শুরু হওয়া এই সচেতনতামূলক অভিযানে যৌথভাবে কাজ করছে ফরিদপুর সুহৃদ সমাবেশ, উত্তোরণ, প্রত্যাশা ও ঘুরিফিরি ফরিদপুর নামের তিনটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

২৫ থেকে ২৮ জুলাই এ পর্যন্ত ১৫টি স্পটে এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। অভিনব এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সুহৃদ ও সহযোগীদের উৎসাহ জোগাতে চতর স্টু্কলটিতে ছুটে গিয়েছিলেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নারগিস জাফরি। শিক্ষক ও অভিভাবকরাও স্বাগত জানান এ প্রচারণার।

জুলাইয়ের মাঝামাঝি সুহৃদ সমাবেশ নন্দিতা সুরক্ষার সঙ্গে একাত্ম হওয়ার পর ফরিদপুরের প্রাথমিক শিক্ষা কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করা হয়। ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম ফরিদপুর জেলার সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের নিরাপদ ও অনিরাপদ স্পর্শ শিক্ষা দেওয়ার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

নন্দিতা সুরক্ষার আহ্বায়ক তাহিয়াতুল জান্নাত রেমি জানান, আমরা এ বিষয়গুলাকে নিয়ে কথা বলতে সংকোচ বোধ করি, লজ্জাবোধ করি। কিন্তু আমাদের এখন উচিত ছোট থেকেই শিশুদের খারাপ এবং ভালো স্পর্শ শিক্ষা দেওয়া। বাবা-মায়েরাও সংকোচ বোধ না করে সন্তানের বন্ধু হয়ে পাশে থাকলে তারা এই বিষাক্ত ছোবল থেকে সতর্ক হতে পারবে। শিশুদের এই ভয়ানক যৌন আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে নন্দিতা সুরক্ষা মূলত ফরিদপুর জেলাব্যাপী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মেয়ে শিশুদের এ ক্ষেত্রে করণীয় কী জানাবে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। ফরিদপুর সদরসহ ৯টি উপজেলায় কার্যক্রম চলমান থাকবে। এই প্ল্যাটফর্মের প্রচার-প্রসার ও সাংগঠনিকভাবে দক্ষ একটি শক্তিশালী মাধ্যম সুহৃদ সমাবেশ আমাদের এগিয়ে যেতে সহযোগিতা করছে। সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সঙ্গে একাত্ম হয়ে যৌথভাবে কাজটি করার সুযোগ পেয়ে আমাদের উৎসাহ ও কজের গতি বহুগুণে বেড়ে গেছে।



হনিজস্ব প্রতিবেদক ফরিদপুর