কালোজিরার তেলে পেটের পীড়া আর নয়

প্রকাশ: ২১ আগস্ট ২০১৯      

আয়ুর্বেদিক ও কবিরাজি চিকিৎসায় কালোজিরার ব্যবহার অনেক। একে বলা হয়ে থাকে সর্বরোগের মহৌষধ। এর পুষ্টিগুণের কথা আমরা কমবেশি সবাই জানি। তবে এই পুষ্টিকর খাদ্য উপাদান থেকে উৎপাদিত তেল খোলা বাজারে যা পাওয়া যায়, তা স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশিই ক্ষতিকর। শুনে অবাক হচ্ছেন? সঠিক গুণগত মানের কালোজিরার তেল পাবেন কোথায়- এমন প্রশ্নের উত্তর 'আলিকসির'। পুষ্টিগুণে ভরা কালোজিরা নিয়ে গবেষণা করে কালোজিরা তেলের অ্যান্টেরিক কোটেড সফট জিলাটিন ক্যাপসুল 'আলিকসির' বাজারে নিয়ে এসেছে পূর্ণাভা লিমিটেড (রেনাটা লিমিটেডের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান)। আলিকসির সম্পর্কে পূর্ণাভা লিমিটেডের গবেষক ও উদ্ভাবক রিনাত রিজভী বলেন, 'আলিকসির শতভাগ বিশুদ্ধ কোল্ড প্রেসড প্রাকৃতিক কালোজিরা তেলের পরিপূর্ণ নিশ্চয়তা। এই ক্যাপসুল সেবনে কালোজিরা তেলের সব উপকারিতা তো মিলবেই। এর পাশাপাশি আলিকসির অ্যান্টেরিক কোটেড হওয়ায় কালোজিরা তেল সেবনে মানুষের সবচেয়ে বড় যে সমস্যা বুক জ্বালাপোড়া করা, পেটের পীড়া তা একেবারেই থাকছে না। ফলে যে কোনো মানুষ নিশ্চিন্তে এটি সেবন করে উপকার পেতে পারেন অনায়াসে।' তিনি আরও জানান, আলিকসির শরীরের ক্ষতিকর কোলেস্টেরল কমিয়ে আনে এবং একই সঙ্গে উপকারী কোলেস্টেরলের পরিমাণ বৃদ্ধি করে শরীরে চর্বির মাত্রা অত্যন্ত চমৎকারভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখে। শরীরের অতিরিক্ত রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। লোহিত রক্তকণিকার মাত্রা বাড়িয়ে শারীরিক সুস্থতা নিশ্চিত করে। থাইরয়েড হরমোনের মাত্রা নামিয়ে এনে হাইপার থাইরয়েডিজমে উপকার করে। এ ছাড়া পুরুষের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে আলিকসির। রেনাটা লিমিটেডের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান পূর্ণাভা লিমিটেড বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন বিকল্প ওষুধ নিয়ে কাজ করছে দীর্ঘদিন ধরেই। ওয়েবসাইট (িি.িঢ়ঁৎহধাধ.পড়স), ফেসবুক (িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/ চঁৎহধাধখরসরঃবফ)



লেখা : শৈলী ডেস্ক