তেলের তেলেসমাতি

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯      

সিরাজুল মুস্তফা

বাঙালির জীবনে তেলের ব্যবহার নানাবিদ। এরা তেল শুধু রান্না বা যন্ত্র চালনায় ব্যবহার করে না। মানুষ চালাতেও ব্যবহার করে। আসুন দেখে নিই।

শিশুদের তেল মারা

হাতের লেখা সুন্দর না হলেও- ওলে বাবালে এত সুন্দর করে লিখেছ! দাও একটা গুড দেই। শিশুটি খুশিতে অস্থির।

বৌকে তেল মারা

বৌকে মারতে হয় খুবই দক্ষভাবে। যে লোক বৌকে যত ভালো করে তেল দিতে পারে তার সংসারে তত শান্তি। বৌয়ের রান্না মজা হোক বা না হোক, আহ! আজকের রান্নাটা ঘ্রাণেই মন ভরে গেল। কী যে রান্না! পাকা রাঁধুনি একেবারে আমার বৌটা।

বাবাকে তেল মারা

বাবা স্যার বলল, তোমার মেধা ভালো। মনে হচ্ছে এবার ফার্স্ট হবা। তবে তার জন্য তোমার একটা কম্পিউটার দরকার। বুঝই তো এখন কম্পিউটারের যুগ। বাপ তো পুরোই খুশি।

শিক্ষককে তেল মারা

তেল মারা এটি একটি শৈল্পিক কাজ। যেহেতু শিক্ষকরা শিল্প সাহিত্য বোঝে। তাই তাদের শৈল্পিকভাবে তেল মারা হয়। স্যার, জীবনে অনেকের কাছে ম্যাথ করেছি তবে আপনার মতো এত সহজ করে গুছিয়ে কেউ বোঝাতে পারেনি। আপনি সেরা স্যার। আপনি যেভাবে পড়ান আর কেউ সেভাবে পড়ান না।

রাজনৈতিক বড় ভাইকে তেল মারা

আমার ভাই তোমার ভাই, ঝন্টু ভাই, ঝন্টু ভাই। ঝন্টু ভাইয়ের চরিত্র ফুলের মতো পবিত্র। ভাইয়ের ফেসবুকে নিয়মিত ট্যাগ করে ছবি দেওয়া। জনমানুষের নেতা ঝন্টু ভাইয়ের সঙ্গে বন্ধুরা। তারপর ঝন্টু ভাইয়ের সব পোস্টে সেরা সেরা লিখতে গিয়ে দেখা যাবে, ঝন্টু ভাইয়ের জিএফ চলে গেছে তখনও বসে লেখে সেরা ভাই।


ছাত্রকে তেল মারা

হুম, একেবারে দারুণ! তুমি আজকাল পড়াশোনায় দিন দিন খুবই ভালো করছ। সেটা খুবই ভালো লাগছে। আগামী পরীক্ষায় তোমার ফার্স্ট হওয়া কেউ ঠেকাতে পারবে না। আচ্ছা, তোমার আম্মুকে বলো তো স্যারকে এ মাসের বেতনটা একটু আগে দিয়ে দিতে।