ডাবল স্ট্ক্রিন মানে দুই পর্দার ডিভাইসের জন্য নতুন অপারেটিং সিস্টেম (ওএস) তৈরির চেষ্টা করছিল মাইক্রোসফট। তবে 'উইন্ডোজ ১০এক্স' নামের ওএস তৈরির পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রযুক্তি বিষয়ক পোর্টাল ভার্জ উইন্ডোজ ১০এক্স কার্যক্রম বন্ধের খবর নিশ্চিত করে জানিয়েছে, অপেক্ষাকৃত হালকা ও সহজে ব্যবহারযোগ হিসেবে গুগল ক্রোম ওএসের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উইন্ডোজ ১০এক্স নিয়ে কাজ করছিল মাইক্রোসফট। কিন্তু করোনার মহামারির মধ্যে উইন্ডোজ কম্পিউটারের বিক্রি বৃদ্ধিতে উইন্ডোজ ১০এক্স কার্যক্রম স্থগিত করেছে মাইক্রোসফট। করোনা শুরুর আগে ২০১৯ সালে দর্শক উপস্থিতিতে একটি অনুষ্ঠানে উইন্ডোজ ১০এক্স ছাড়ার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছিল মাইক্রোসফট। উইন্ডোজের সারফেস ডিভাইসের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের দুই পর্দার ডিভাইসের জন্য অপ্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উইন্ডোজ ১০এক্স চালু করতে চেয়েছিল মাইক্রোসফট। ভার্জের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চলতি বছর উইন্ডোজ ১০এক্স বাজারে আসছে না। হয়তো আগামীতেও আসবে না। কেননা, দুই পর্দার চেয়ে এক পর্দার ডিভাইসের জন্য উইন্ডোজ উন্নয়নে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে মাইক্রোসফট। উইন্ডোজ ১০এক্সের জন্য তৈরি নতুন ফিচারগুলো উইন্ডোজ ১০-এ দিয়ে দিতে পারে বিশ্বসেরা সফটওয়্যার কোম্পানিটি। তবে উইন্ডোজ ১০এক্স প্রকল্প আসলেই বন্ধ হয়েছে কিনা- এ সম্পর্কে মুখ খোলেনি মাইক্রোসফট। এক সময় ধারণা করা হয়েছিল, স্মার্ট ডিভাইসের জনপ্রিয়তায় কম্পিউটার ডিভাইস বাজার থেকে হারিয়ে যাবে। কিন্তু সাম্প্রতিক হিসাব এ ধরনের আশঙ্কাকে ভুল প্রমাণিত করেছে। গত এক বছরে উইন্ডোজ ল্যাপটপের চাহিদা বেড়েছে। করোনার প্রাদুর্ভাবে বৈশ্বিক চিপ সংকটের মধ্যেও রেকর্ডসংখ্যক ডেস্কটপ ও ল্যাপটপ বিক্রি হয়েছে, যার অধিকাংশই ছিল উইন্ডোজ ওএস চালিত। এতে উইন্ডোজ বিক্রি থেকে মাইক্রোসফটের আয় বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রযুক্তি প্রতিদিন ডেস্ক

মন্তব্য করুন