ব্লকচেইন নিয়ে কাজ করবে চলো টেকনোলজিস

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮      

ব্লকচেইন প্রযুক্তি দেশের জন্য সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরি করতে পারে। রাইড শেয়ারিং থেকে শুরু করে আর্থিক খাত, চিকিৎসাক্ষেত্রসহ নানা খাতে এ প্রযুক্তির সুফল পাওয়া সম্ভব। গতকাল বেসিস কার্যালয়ে ব্লকচেইন নিয়ে আয়াজিত সেমিনারে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। রাইড শেয়ারিং অ্যাপ চলোর উদ্যোগে 'ব্লকচেইন ফর বাংলাদেশ' শীর্ষক সেমিনারে বলা হয়, ব্লকচেইন হলো ডাটা সংরক্ষণ করার একটি নিরাপদ ও উন্মুক্ত পদ্ধতি। এয পদ্ধতি অনুযায়ী ডাটাগুলো বিভিন্ন ব্লকে একটির পর একটি চেইন আকারে সংরক্ষণ করা হয়। এতে ডাটার মালিকানা সংরক্ষিত থাকে। এই পদ্ধতিতে ডাটা সংরক্ষণ করলে কোনো একটি ব্লকের ডাটা পরিবর্তন করতে চাইলে সেই চেইনে থাকা প্রতিটি ব্লকে পরিবর্তন আনতে হবে। এটি প্রায় অসম্ভব। তাই এ পদ্ধতিতে ডাটা সংরক্ষণ করাটা বেশ নিরাপদ। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে ব্লকচেইন সেবা চালুর ঘোষণা দেন চলোর প্রতিষ্ঠাতা দেওয়ান শুভ। তিনি বলেন, এ পদ্ধতিতে খরচ কমবে। এতে চালক ও যাত্রী লাভবান হবেন। এছাড়া নিরাপত্তাসহ নানা ক্ষেত্রে এ ব্লকচেইন ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। অনুষ্ঠানে সিলিকন ভ্যালিভিত্তিক প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ পল ব্রাইজেক বলেন, বাংলাদেশে ব্লকচেইন নিয়ে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। গবেষণা অনুযায়ী, ৩৮০ বিলিয়ন ডলারের আন্তর্জাতিক বাজার রয়েছে ব্লকচেইনের। অনুষ্ঠানে আফিয়া ভেঞ্চার ক্যাপিটালের উদ্যোক্তা মীর হক উপস্থিত ছিলেন।