চিটাগাং চেম্বারের পরিচালকদের দায়িত্ব গ্রহণ

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির ২০১৯-২০ ও ২০২০-২১ মেয়াদের জন্য নবনির্বাচিত পরিচালকমণ্ডলী ৩০ জুন এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন্দর-পতেঙ্গা (চট্টগ্রাম-১১) আসনের সংসদ সদস্য এম. এ. লতিফ।

চেম্বারের ৪র্থ বারের মতো নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন বর্তমান বোর্ডের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. নুরুন নেওয়াজ সেলিম ও সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, নবনির্বাচিত সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর হাজ্জাজ ও সহ-সভাপতি তরফদার মো. রুহুল আমিন, বর্তমান পরিচালক এ. কে. এম. আক্‌তার হোসেন, কামাল মোস্তফা চৌধুরী, জহিরুল ইসলাম চৌধুরী (আলমগীর), মো. অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), মো. জহুরুল আলম, ছৈয়দ ছগীর আহমদ, সরওয়ার হাসান জামিল, মোঃ রকিবুর রহমান (টুটুল), হাসনাত মো. আবু ওবাইদা, মোঃ শাহরিয়ার জাহান, মুজিবুর রহমান, মো. আবদুল মান্নান সোহেল এবং নবনির্বাচিত পরিচালক বেনাজির চৌধুরী নিশান, মো. এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী, নাজমুল করিম চৌধুরী শারুন, সৈয়দ মোহাম্মদ তানভীর, সালমান হাবীব, সাকিফ আহমেদ সালাম ও শাহজাদা মো. ফৌজুল আলেফ খান বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথি এম. এ. লতিফ এমপি বলেন, 'বর্তমান বিশ্বে তরুণরাই নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নবীনদের প্রাধান্য দিয়ে মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন। তার এ দৃষ্টান্তে অনুপ্রাণিত হয়ে চট্টগ্রামের বনেদি ব্যবসায়ী পরিবারের তরুণ সদস্যদের নিয়ে নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে নির্বাচিত চিটাগাং চেম্বার পরিচালকমণ্ডলীর পক্ষে সাধারণ সদস্যদের প্রত্যাশা পূরণ করা সম্ভব হবে বলে তিনি মনে করেন। ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে দেশের অর্থনীতিতে চিটাগাং চেম্বারের অবদান সর্বাধিক এবং স্বতন্ত্র। চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী নেতারা অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণভাবে যুগ যুগ ধরে এ প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। আগের নেতাদের অবদানের ফলে চেম্বার আজ দেশের অন্যতম অগ্রগণ্য ব্যবসায়ী সংগঠন। দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে যে কোনো সমস্যা সমাধানে কার্যকর প্ল্যাটফর্ম এই চেম্বার।

সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, চট্টগ্রামের বাণিজ্যিক ঐতিহ্য হাজার বছরের। বাণিজ্য সংগঠন হিসেবে চিটাগাং চেম্বারের পথচলা শত বছরের। সেই ঐতিহ্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় চেম্বারকে অধিকতর কার্যকর করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন চেম্বার সভাপতি। বন্দরকেন্দ্রিক আমদানি-রফতানি বাণিজ্য, জাতীয় বাজেট প্রণয়নসহ সময় সময় উত্থাপিত যে কোনো সমস্যা সমাধানে এ চেম্বার কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে।

সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. নুরুন নেওয়াজ সেলিম বলেন, দেশের অর্থনীতির যে কোনো বিষয়ে বলিষ্ঠ ভূমিকার কারণে জাতীয় ক্ষেত্রে চিটাগাং চেম্বারের আলাদা একটি ইমেজ রয়েছে। তিনি নতুন নেতৃত্ব এই ইমেজ আরও বৃদ্ধি করতে সফল হবেন বলে মনে করেন। সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ নবনির্বাচিত পরিচালকদের স্বাগত জানিয়ে চিটাগাং চেম্বারের উত্তরোত্তর সাফল্য অর্জিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ওমর হাজ্জাজ বলেন, ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের আধুনিকায়নে কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে।