বিতর্ক প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে চবি উপাচার্য

বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞানচর্চার উন্মুক্ত ক্ষেত্র

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯     আপডেট: ০৬ জুলাই ২০১৯      

'মানবিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় সমাজের সকল প্রকার অন্যায়-অসঙ্গতি যুক্তির মাধ্যমে দূরীভূত করার পথ সৃষ্টির অন্যতম শক্তিশালী মাধ্যম হলো বিতর্ক। যুক্তিতর্কের মাধ্যমে সত্যকে উদঘাটন করে সঠিক ও ন্যায়ের পথে সমাজকে ধাবিত করতে পারলেই সমাজে একে অপরের প্রতি ভ্রাতৃত্ববোধ সৃষ্টি সম্ভব।'

১ জুলাই অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিতর্ক সংগঠন 'চিটাগং ইউনিভার্সিটি স্কুল অব ডিবেট' (সিইউএসডি) আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতার সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার এসব কথা বলেন।

এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চবি যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক খ আলী আর রাজী।

প্রধান অতিথি অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার তার ভাষণে উপস্থিত সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হলো মুক্ত জ্ঞানচর্চার উন্মুক্ত ক্ষেত্র। শুধু পঠন-পাঠন নয়, জ্ঞান-গবেষণার অন্যতম তীর্থস্থান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-গবেষক এবং শিক্ষার্থীরা একদিকে জ্ঞান-গবেষণায় রত আছেন, অন্যদিক বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত থেকে নিজেদের অধিকতর সমৃদ্ধ করছেন।

তিনি আরও বলেন, 'আমাদের সম্ভাবনাময় মেধাবী তরুণ শিক্ষার্থীরা তাদের মেধার পরিপূর্ণ বিকাশে একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি অধিকমাত্রায় সৃজনশীল কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত হয়ে নিজেদের অধিকতর দক্ষ-যোগ্য মানবসম্পদে পরিণত করে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে- এটাই প্রত্যাশিত।'

পরে তিনি বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে ক্রেস্ট ও সনদপত্র বিতরণ করেন।

সিইউএসডি'র সভাপতি অভিষেক দত্তের সভাপতিত্বে এবং তনু শর্মার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সংগঠনের সদস্যসহ বিপুলসংখ্যক ছাত্রছাত্রী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতায় ২২টি দল অংশগ্রহণ করে। এতে চবি মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগ চ্যাম্পিয়ন এবং ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ (আইইআর) রানারআপ হওয়ার গৌরব অর্জন করে। বিজ্ঞপ্তি