অস্ট্রিয়ায় উচ্চশিক্ষার সুযোগ

প্রকাশ: ১১ জুলাই ২০২০

ফারজানা আক্তার

অস্ট্রিয়া সেন্ট্রাল ইউরোপের একটি অর্থনৈতিক সমৃদ্ধ সেনজেনভুক্ত দেশ। এ দেশের প্রধান ভাষা জার্মান (অস্ট্রীয় জার্মান)। রাজধানী ভিয়েনা, যা বিশ্বের একটি ঐতিহ্যবাহী রাজধানী এবং ভিয়েনা ২০১৬ সালসহ অনেকবারই বসবাসের জন্য সেরা শহর হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। যদি ইউরোপে উচ্চশিক্ষা ও উন্নত ক্যারিয়ার নিয়ে ভেবে থাকেন, তাহলে অস্ট্রিয়া হতে পারে আপনার জন্য একটি আদর্শ দেশ। এতে ৯টি রাজ্য রয়েছে। অস্ট্রিয়ার মুদ্রার নাম ইউরো। এর উত্তরে চেক প্রজাতন্ত্র ও জার্মানি, দক্ষিণে স্লোভেনিয়া ও ইতালি, পূর্বে হাঙ্গেরি ও স্লোভাকিয়া এবং পশ্চিমে সুইজারল্যান্ড ও লিশ্চটেইন্সটাইন অবস্থিত।

আবেদনের আগে যা জানা দরকার

অস্ট্রিয়ায় আপনি এইচএসসির পর সরাসরি ব্যাচেলরে ভর্তি হতে পারবেন না। বাংলাদেশ থেকে ১২+ শিক্ষার যোগ্যতা থাকতে হবে এবং সেটি চলমান থাকতে হবে অর্থাৎ এইচএসসির পর বাংলাদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা চলমান থাকতে হবে এবং আপনি যে বিষয়ে বাংলাদেশে পড়ছেন ওই বিষয়েই অস্ট্রিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে পারবেন। কিন্তু আপনি অস্ট্রিয়ায় গিয়ে সরাসরি ব্যাচেলর শুরু করতে পারবেন না। আপনাকে ওখানে গিয়ে প্রথমে Preparatory Course  করতে হবে। তারপর একটা পরীক্ষা নেবে, উপযুক্ত নম্বর পেলেই কেবল ব্যাচেলর শুরু করতে পারবেন।

ইউনিভার্সিটিতে আবেদনের সময় ও যাবতীয় তথ্যাবলি

অস্ট্রিয়ায় কিছু পুরোনো ও বিখ্যাত ইউনিভার্সিটি রয়েছে। তার মধ্যে  University of Vienna অন্যতম। এটি ১৩৬৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ইউরোপের তৃতীয় পুরোনো ইউনিভার্সিটি।

অস্ট্রিয়ান সরকারি ইউনিভার্সিটিগুলোয় বাংলাদেশসহ থার্ড লিস্টভুক্ত দেশগুলোর জন্য কোনো ধরনের টিউশন ফি প্রদান করতে হয় না। শুধু ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট ইউনিয়ন ফি প্রদান করতে হয় (প্রায় ১৯ ইউরো প্রতি সেমিস্টার)। অস্ট্রিয়ার শিক্ষার মান বেশ ভালো এবং আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

lSSC Transcript and Certificate
lHSC Transcript and Certificate
lBachelor Running Document (If required)
lBachelor Transcript and Certificate (Applying for masters, If required)
lProof of Identity (NID/Passport copy)
lIELTS Certificate (If required)
lGerman language Certificate (If required)
lRecommendation letter (If applicable, applying for masters/PhD)
lMotivation letter (If applicable, applying for masters/PhD

শিক্ষাগত ও ভাষাগত যোগ্যতা

বাংলাদেশে থেকে ১২+ পড়াশোনা, যে কোনো সরকার অনুমোদিত ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হবে (ব্যাচেলরের জন্য)।

এসএসসি/এইচএসসিতে কমপক্ষে ৫০ শতাংশ নম্বর (জিপিএ ৩, স্কেল ৫ থেকে), ব্যাচেলর/মাস্টার্সে ৫০ শতাংশ নম্বর (জিপিএ ২.৫০, স্কেল ৪ থেকে) থাকা ভালো।

কোর্স খুঁজুন :http://www.studienwahl.at/Content.Node/homepage.en.ph