রাঙ্গাবালীতে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গামছা দিয়ে চোখ-মুখ বেঁধে তাকে ধর্ষণ করা হয়। গত শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ছোটবাইশদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর মা এ ঘটনায় রোববার রাতে হাসান মৃধাসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরেক ব্যক্তিকে আসামি করে রাঙ্গাবালী থানায় মামলা করেন। পুলিশ রাতেই কোড়ালিয়া বাজার এলাকা থেকে মামলার প্রধান আসামি হাসান মৃধাকে (৪২) গ্রেপ্তার করে। তিনি ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। গতকাল সোমবার সকালে তাকে গলাচিপা উপজেলার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, হাসান মৃধা আরেক ব্যক্তিকে নিয়ে ঘটনার সময় গৃহবধূর ঘরে ঢুকে তার চোখ-মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে ফেলেন। এরপর গরম বস্তু দিয়ে গৃহবধূর বাম হাতে এবং বাম কোমরে ছ্যাঁকা দেন। এক পর্যায়ে দ্বিতীয় ব্যক্তি গৃহবধূর দুই হাত চেপে ধরে রাখেন এবং হাসান মৃধা তাকে ধর্ষণ করেন।

রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেওয়ান জগলুল হাসান জানান, প্রধান আসামি হাসান মৃধাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপর আসামিকে শনাক্ত ও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন