চার দিনের ছুটি নিয়ে ছয় বছর ধরে অনুপস্থিত নাসিরনগর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের ফার্মাসিস্ট রাজীব হাসান। কর্মক্ষেত্রে যোগদানের পর থেকেই অনিয়মিত ছিলেন তিনি। এ কারণে ২০১২ সালের ২৯ মে বিনা অনুমতিতে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন নাসিরনগর পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ফাহমীন খালেক নিপা। এর কোনো জবাব দেননি তিনি। বরং ২০১৩ সালের ২৮ ডিসেম্বর অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে চার দিনের ছুটির আবেদন করেন রাজীব হাসান।

জানা যায়, ২০১৪ সালের ১২ ডিসেম্বর কন্টিনেন্টাল কুরিয়ারে উপজেলা মেডিকেল অফিসার বরাবর পুনরায় চাকরিতে যোগদানের আবেদন করেন রাজীব হাসান। সেখান থেকে একটি নম্বর পাওয়া যায়। সেই নম্বরে যোগাযোগ করলে রাজীব হাসানের ব্যক্তিগত নারী সহকারী ফোন রিসিভ করেন। তখন সমকাল প্রতিবেদক ওই নারী সহকারীর কাছে রাজীব হাসানের আত্মীয় পরিচয় দিলে কথা বলতে রাজি হন। রাজীব হাসানের কাছে কর্মস্থলে অনুপস্থিতির কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, অসুস্থ ছিলাম। চিকিৎসার প্রয়োজনে ভারতের একটি বেসরকারি হাসপাতালে দুই বছর ছিলাম। সরকারি বিধি অনুযায়ী একজন সরকারি কর্মচারী প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারেন কিনা জানতে চাইলে একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে পরে যোগাযোগ করতে বলেন তিনি।

পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আকিব উদ্দিন বলেন, তাকে বহুবার কারণ-দর্শানোর নাটিশ দেওয়া হয়েছে। বেতন বন্ধসহ বিভাগীয় মামলাও হয়েছে।

মন্তব্য করুন