ধলাই নদীতে বাঁশের সাঁকো ঝুঁকি নিয়ে পারাপার

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯      

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনা পৌরসভার উত্তর পাশ দিয়ে প্রবাহিত ধলাই নদী। পৌরসভার ওই এলাকায় ধলাই নদীর ওপর নেত্রকোনা রেলওয়ে স্টেশন-মঈনপুর এলাকায় কেডিসি ঘাটে একটি বাঁশের সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করতে হয় ছয়টি গ্রামের হাজার হাজার মানুষকে। এলাকাবাসীকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হতে হয় ওই নদী।

নেত্রকোনা পৌরসভার অন্তর্ভুক্ত মঈনপুর, মাহমুদপুর, পুকুরিয়া উলুয়াটি, খয়রাটি, চচুয়া বাজারসহ ছয়টি গ্রামের প্রায় অর্ধলাখ মানুষের দুর্ভোগের কারণ এই একটি মাত্র সাঁকো। ছয়টি গ্রামের সঙ্গে পৌরসভা তথা জেলা শহরের একমাত্র সংযোগ সেতু হচ্ছে বাঁশের সাঁকো।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, নেত্রকোনা সরকারি কলেজ, পিটিআই, স্কুল-মাদ্রাসা, সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত, রেলওয়ে স্টেশন, বাজার- সবকিছু রয়েছে ধলাই নদীর দক্ষিণ পাশে মূল পৌরসভা বা জেলা শহরে। ফলে প্রতিদিন বিভিন্ন কাজে ওই সব গ্রামের মানুষকে ঝুঁকিপূর্ণ এই বাঁশের সাঁকো পার হয়ে শহরে আসা-যাওয়া করতে হয়। তা ছাড়া এলাকার শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই সাঁকো পার হয়ে স্কুল-কলেজে যাওয়া-আসা করতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে পৌর কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন-নিবেদন করেও কোনো কাজ হচ্ছে না।

নেত্রকোনা পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম খান জানান, চলতি বছর ওই ব্রিজটিসহ পৗর এলাকায় চারটি ব্রিজের প্রস্তাবনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই টেন্ডার

প্রক্রিয়া শেষ করে ব্রিজ নির্মাণের কাজ শুরু হবে।