তাবলিগ জামাতের ১৪ সদস্যকে অজ্ঞান করে লুট

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৯      

নোয়াখালী প্রতিনিধি

কবিরহাট উপজেলার বাটইয়া ইউনিয়নের ভূঞারহাট জামে মসজিদে বৃহস্পতিবার রাতে তাবলিগ জামাতের এক সাথি ভাইয়ের বিরুদ্ধে অন্য ১৪ জন সাথি ভাইকে অচেতন করে টাকা, মোবাইল ফোন লুট

করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা শুক্রবার অসুস্থ তাবলিগ জামাতের ১৪ সদস্যকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি মির্জা মোহাম্মদ হাসান বলেন, দুই দিন আগে ঢাকার কাকরাইল মসজিদ থেকে তাবলিগ জামাতের ১৫ সদস্যের একটি দল এখানে আসে। পরে বৃহস্পতিবার রাতে ভাতের সঙ্গে পাতলা ডাল খেয়ে সবাই অচেতন হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় তাবলিগ জামাতের ময়মনসিংহের রুবেল নামে এক সদস্য পলাতক রয়েছে। পলাতক রুবেল তাদের জামাতের সফরসঙ্গী ছিল। সে রাতে সবাইকে ভাতের সঙ্গে ডাল পরিবেশন করেছিল। ভুক্তভোগীদের ধারণা, পলাতক রুবেল ডালের সঙ্গে অচেতন হওয়ার মতো নেশা জাতীয় কোনো দ্রব্য খাইয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

পলাতক রুবেল তাবলিগ জামাত সাদ গ্রুপের সদস্য বলে দাবি করেন ভুক্তভোগী তাবলিগ জামাতের সদস্যরা।