কংস নদে বালু উত্তোলনের দায়ে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

সদর উপজেলার বড়ওয়াড়ি এলাকায় কংস নদ থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বালু উত্তোলনকারী পাঁচজন বালু ব্যবসায়ীকে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। একই সঙ্গে নদী থেকে উত্তোলিত বিপুল পরিমাণ বালু জব্দ এবং একটি ড্রেজার মেশিন ও বালু তোলার সরঞ্জাম আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) বুলবুল আহমেদ এবং সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহীন মাহমুদ পৃথকভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

জরিমানা পরিশোধকারী বালু ব্যবসায়ীরা হলেন- মো. নাজিম উদ্দিন, মো. আবুল ফাতাহ. মো. জাহাঙ্গীর, মো. শামীম মিয়া ও মামুন মিয়া। ভ্রাম্যমাণ আদালত নাজিম উদ্দিন ও আবুল ফাতাহ প্রত্যেককে পাঁচ লাখ করে ১০ লাখ, শামীম মিয়াকে তিন লাখ, জাহাঙ্গীরকে তিন লাখ ও মামুন মিয়াকে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা করেন।

সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ও মেদনী এলাকায় কংস নদের বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছুদিন ধরে স্থানীয় কিছু অসাধু বালু ব্যবসায়ী ট্রলারে ড্রেজার বসিয়ে দিনে ও রাতের বেলায় বালু উত্তোলন করছিল। এ নিয়ে গত ২৪ আগস্ট সমকালে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এতে করে কয়েক দিন কংস নদে বালু উত্তোলন বন্ধ ছিল। গত শুক্রবার বিকেল থেকে ফের বালু উত্তোলন শুরু করে বালু ব্যবসায়ীরা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বুলবুল আহমেদ এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার মো. শাহীন মাহমুদ পৃথকভাবে কংস নদের বিভিন্ন এলাকায় রোববার ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।