বিশ্বনাথে গোপাট দখল নিয়ে তিন পক্ষ মুখোমুখি, উত্তেজনা

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি

বিশ্বনাথ উপজেলার মটুককোনা গ্রামের সরকারি গোপাট (গ্রাম্য রাস্তা) দখল নিয়ে তিনপক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে যে কোনো সময় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। সম্প্রতি এ নিয়ে গ্রামের দু'পক্ষের মধ্যে মারামারির পর গ্রামবাসী ইউএনও বরাবরে অভিযোগ দেন। পরে দশঘর ইউনিয়নের তহশিলদার জামিল আহমদ ঘটনা তদন্তে যাওয়ার পর গত তিন দিন ধরে তিনপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

তিনপক্ষের একপক্ষে রয়েছেন গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী আখতার হোসেন। তিনি মটুককোনা গ্রামের মৃত নুরুজ আলীর ছেলে। প্রতিপক্ষে রয়েছেন তার চাচাতো ভাই পাশের বাড়ির আব্দুল আহাদের ছেলে সেলিম মিয়া। আর তৃতীয় পক্ষে রয়েছেন গ্রামবাসী।

স্থানীয় বাসিয়া নদীর তীর থেকে মটুককোনা গ্রামের ভেতর দিয়ে বাবুল মেম্বারের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার দীর্ঘ ও ১৮-১৯ ফুট প্রস্থের সরকারি একটি গোপাট রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে গোপাটের পার্শ্ববর্তী বাসিন্দাদের দখলের কারণে ১৯ ফুটের গোপাটটি বর্তমানে প্রায় ৯ ফুটে এসে দাঁড়িয়েছে। ওই ৯ ফুট গোপাটকে চলাচলের রাস্তা হিসেবে ব্যবহার করছেন গ্রামবাসী। গ্রামবাসী অভিযোগ করেন, শুধু আখতার হোসেন ও সেলিম মিয়া নন, গ্রামের ইউপি সদস্য বাবুল মিয়া, প্রবাসী আনোয়ারা বেগম, সমশের আলী, সমুজ আলী, পংকি মিয়াসহ আরও ১৫-২০ জন গোপাটটি দখল করে রেখেছেন।

অভিযুক্ত প্রবাসী আখতার হোসেন ও সেলিম মিয়া বলেন, তদন্তে প্রমাণিত হলে তারা গোপাটের দখল ছেড়ে দেবেন। ইউএনও বর্ণালী পাল বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।